Sharing is caring!

দর্পণ ডেস্ক \ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ফের আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার রাজশাহীর পবা উপজেলার চিনিকল মাঠে আয়োজিত জনসভায় এ আহŸান জানান প্রধানমন্ত্রী। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এলে দেশে উন্নয়ন হয়। আর বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকলে দুর্নীতি আর বিদেশে টাকা পাচার করে। ২০১৪-এর নির্বাচনে আমরা জয়লাভ করেছি বলেই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ২০১০ সালে জেএমবি-বাংলাভাই এসে আবদুল কাউয়ুম বাদশাকে মেরে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। আওয়ামী লীগের ইয়াসির আলী, খেজুর আলী, রব্বানী বকুলকে হত্যা করে। দুজন সংসদ সদস্য, এ এস এম কিবরিয়া এবং আহসান উল্লাহ মাস্টারকে হত্যা করে। বিএনপি জামায়াত জোট যে জঙ্গিবাদ আর সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল, সেখানে তাদের হাতে বিএনপি-জামায়াত আরো হত্যাকান্ড চালিয়েছে। শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজকে আমি আপনাদের জন্য উপহার নিয়ে এসেছি। খালি হাতে আসিনি। কিছুক্ষাণ আগে আপনারা জানেন, অনেকগুলো প্রকল্প উদ্বোধন করেছি, অনেকগুলো ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছি। উল্লেখ্য, গত ২৩ জুলাই রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে কর্মীসভায় আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়ার আহŸান জানান তিনি। এর আগে রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজে যোগদান করেন। এসময় পুলিশ বাহিনীকে আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের প্রচলিত আইন, সততা ও নৈতিক মূল্যবোধই হবে পেশাগত দায়িত্ব পালনের পথ প্রদর্শক। তাদেরকে আরও পেশাদার ও জনবান্ধব হয়ে কাজ করার তাগিদ দিয়েছেন তিনি। নবীন পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় জনগণের মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনের প্রতি জোর দিতে হবে। সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে জনগণের কল্যাণে কাজ করতে হবে। নতুন পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ এই মুহূর্তে দেশমাতৃকাকে ভালোবেসে অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন।’ স্বাধীনতা যুদ্ধে পুলিশ বাহিনীর বিশেষ অবদানের কথা উল্লেখ করে পূর্বসূরিদের অনুসরণ করতে নতুন পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহŸান জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, শান্তি নিরাপত্তা ও শৃক্সখলার প্রতীক বাংলাদেশ পুলিশ। শুধু স্বাধীনতা সংগ্রামেই নয়, দেশের সঙ্কটময় মুহূর্তে দেশের পুলিশ সদস্যরা সাহসিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা রক্ষা এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ পুলিশের আন্তরিকতা, কর্মদক্ষতা ও পেশাদারিত্ব দেশবাসীর কাছে প্রশংসিত হচ্ছে। ৩৪তম বিসিএসের ১৪১ কর্মকর্তা পুলিশ অফিসার হিসেবে কর্মজীবনে প্রবেশ করছেন। এর মধ্যে ২৬ জন নারী রয়েছেন। নতুন পুলিশ কর্মকর্তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে প্রবল বৃষ্টির মধ্যেই বৃহস্পতিবার বেলা ১০ টায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে পৌঁছায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টার। পরে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নেন। প্যারেড পরিদর্শন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশিক্ষণকালে বিভিন্ন ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *