Sharing is caring!

নওগাঁ প্রতিনিধি\ আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হয়েছে নওগাঁয় আঞ্চলিক ইজতেমা শেষ। শনিবার দুপুরে বেলা ১১টা ৫০ মিনিট থেকে প্রায় ২২মিনিট ব্যাপী মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকার কাকরাইল জামে মসজিদের পেশ ইমাম মওলানা মোহাম্মদ রবিউল হক। বাংলাদেশসহ বিশে^র সকল মুসলিম উম্মার শান্তি, বাংলাদেশের অগ্রগতি এবং সকল মুসলিম স্বরনার্থীদের শান্তিময় জীবন কামনা করে দোয়া করা হয়।  মোনাজাতে সারাবিশ্বের মুসলমানদের উপর নির্যাতন নিপড়ন বন্ধে দোয়া করা হয়। জঙ্গি, সন্ত্রাস তথা উগ্রবাদিদের হেদায়েত কামনা করা হয়। মোনাজাত করা হয় ইহকালিন ও পরলৌকিত শাস্তির জন্য। মোনাজাতে দেশের বিভিন্ন জেলা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত ও ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা অংশ নেন। এসময় ইজতেমা ময়দানে প্রায় দুই লক্ষাধিক লাখ নারী-পুরুষের সমাগম ঘটে। নওগাঁ শহরের পূর্বপ্রান্তে সান্তাহার সংলগ্ন দোগাছী মাঠে গত ২৫ জানুয়ারী বৃহষ্পতিবার থেকে এই ইজতেমা শুরু হয়। নওগাঁ, পাশ^বর্তী বগুড়া, জয়পুরহাট, রাজশাহী, নাটোর জেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রায় ২ লাখেরও বেশী ধর্মপ্রাণ মানুষ টঙ্গির বিশ^ ইজতেমার পর বাংলাদেশে দ্বিতীয় বৃহত্তম এই আঞ্চলিক ইসলামী মহসমাবেশে যোগদান করেন। কয়েকদিন ধরে  ইজতেমাস্থলে অবস্তানরত মুসল্লী ছাড়াও আখেরী মোনাজাতে অংশ নেয়ার জন্য সকাল থেকেই নওগাঁ জেলার বিভিন্ন উপজেলা এবং পার্শ্রবর্তী জেলা সমুহ থেকে হাজার হাজার নারী পুরুষ আবাল বৃদ্ধ জনতা এস্তেমাস্থলে এসে যোগদান করেন। দোয়া শেষ হওয়ার সাথে এস্তেমাস্থল থেকে একযোগে বাড়ী ফেরা মানুষের ভীড়ে সান্তাহার-রানীনগর, সান্তাহার-নওগাঁ, সান্তা-আক্কেলপুর, সান্তাহার-বগুড়া সড়কসহ বিভিন্ন সংযোগ সড়কগুলো জনস্রোতে পরিনত হয়। প্রায় দু’ঘন্টারও বেশী সময় লেগে যায় এসব সড়ক যানজট মুক্ত হতে। শান্তিপূর্ণ এই ইজতেমা সম্পন্ন করতে ব্যাপক নিরাপত্তমুলক ব্যবস্থা গ্রহন করে নওগাঁ জেলা পুলিশ। এ উপলক্ষে ইজতেমা স্থলে বসানো হয় একটি সার্বক্ষনিক পুলিশ কন্ট্রোলরুম ও সিসিটিভি ক্যামেরা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *