Sharing is caring!

প্রেস বিজ্ঞপ্তি \ পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন এবং সমতল আদিবাসীদের জন্য পৃথক ও স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠন শীর্ষক আলোচনা সভা হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির দুই দশক (১৯৯৭-২০১৭) পূর্তি উপলক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন এবং সমতল আদিবাসীদের জন্য প্রথক ও স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠনের দাবিতে শনিবার বিকেলে রাজশাহী মহানগরীস্থ মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগারে এক আলোচনা সভা হয়েছে। জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন এর সভাপতিত্বে সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফোকলোর বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোঃ আমিরুল ইসলাম (কনক)। আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. সুজিত সরকার, বিশিষ্ট কলামিস্ট প্রশান্ত কুমার সাহা, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির রাজশাহী জেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বরজাহান আলী শাহজাহান, বিশিষ্ট সমাজ সেবক সূর্য্য হেমব্রম, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সবিন চন্দ্র মুন্ডা, রাজশাহী জেলা সভাপতি বিমল চন্দ্র রাজোয়াজড়, রাজশাহী মহানগর সভাপতি সুমিলা টুডু, আদিবাসী যুব পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নবদ্বীপ লাকড়া, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নকুল পাহান, পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ রাজশাহী মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক দীপন চাকমা, তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মংকেওয়ান রাখাইন প্রমূখ।  আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম। বক্তারা বলেন, যে শান্তি প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে ১৯৯৭ সালের ২রা ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) এর সাথে বাংলাদেশ সরকারের যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল তার দুই দশক পূর্ণ হতে চললেও চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন এখনো হয়নি। এর ফলে পার্বত্য অঞ্চলের আদিবাসীদের মধ্যে অবিশ্বাস দিনদিন বৃদ্ধি পেয়েছে। চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন না হওয়ায় সেখানকার আদিবাসীরা ভূমির অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়াও পার্বত্য এলাকায় প্রতিনিয়ত অত্যাচার, নিপীড়ণ, হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, মামলা-হামলা, উচ্ছেদ, অগ্নিসংযোগ, পাহাড় ও বন ধ্বংস, ভূমি দখল এবং বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়াও ভূমিকে কেন্দ্র করে সমতল অঞ্চলের আদিবাসীদের উপর নির্যাতন, হত্যা, নারী ধর্ষণ, উচ্ছেদ, ভূমি বেদখল বেড়েই চলেছে। বক্তারা অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন এবং সমতল আদিবাসীদের জন্য পৃথক ও স্বাধীন ভূমি কমিশন করার জোর দাবি জানান। জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম এক প্রেসনোটে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *