Sharing is caring!

যেকোনো দেশের দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়নের পূর্বশর্ত হলো আন্তর্জাতিক বিশ্বের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই বহির্বিশ্বের সাথে বাংলাদেশের বন্ধন যেকোনো সময়ের থেকে হয়েছে মজবুত। বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর  সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক রক্ষার পাশাপাশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক জোট যেমন সার্ক, ওআইসি, ইইউ এবং জাতিসংঘের সাথে মজবুত সম্পর্ক বাংলাদেশকে এনে দিয়েছে বিশ্বদরবারে সম্মানের আসন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশ সরকারের সম্পর্ক অতীতের যেকোন সময়ের থেকে ভালো অবস্থানে। আমেরিকার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন এবং জন কেরির বাংলাদেশ সফর এমনটিই ইঙ্গিত করে। বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর দেশ চীনের সাথে বাংলাদেশের রয়েছে কৌশলগত কূটনৈতিক সম্পর্ক। সা¤প্রতিক সময়ে চীনের সাথে ২৫ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি দেশের অবকাঠামো, প্রযুক্তি ও বাণিজ্যে উন্মোচন করতে যাচ্ছে অপার সম্ভাবনার দ্বার। বর্তমান সরকারের দূরদর্শিতায় মধ্যপ্রাচ্যের সাথে সম্পর্কেও এসেছে গভীরতা। সৌদি আরব, কুয়েত, ওমান, বাহরাইন এবং আরব আমিরাতের সাথে কূটনৈতিক, বাণিজ্যিক ও বিনিয়োগ সহযোগিতা বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে পালন করছে বিরাট ভূমিকা। এছাড়াও ভারত এবং রাশিয়ার সাথে ভারসাম্যপূর্ণ সম্পর্ক বাংলাদেশেকে কৌশলগত কূটনৈতিক যুগে নিয়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকরা। আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে সচেষ্ট  বর্তমান সরকার। সকল দেশের সাথে সুসম্পর্ক বাজার রেখে বাংলাদেশ একদিন পৌঁছে যাবে সাফল্যের শিখরে, এমনটা প্রত্যাশা দেশের ১৭ কোটি মানুষের।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *