Sharing is caring!

ইজ্জত ও মনোনয়ন- দুটোই হারালেন বিএনপির

সাবেক এমপি নিলোফার চৌধুরী মনি!

নিউজ ডেস্ক: মনোনয়নের আশায় নিজের ইজ্জত হারাতে হলো বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য নিলোফার চৌধুরী মনির। বিএনপির এই সাবেক প্রভাবশালী নেতা যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলে দলের নেতাদের হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।সম্প্রতি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে সুযোগসন্ধানী বিএনপির শীর্ষ নেতাদের হুঁশিয়ারি জানিয়ে এ সংক্রান্ত একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছেন তিনি। তিনি লিখেছেন, ‘মনোনয়নের লোভ দেখিয়ে মা-বোনদের ইজ্জত হরণ বন্ধ করুন। জনগণ জেগে উঠলে সমস্যা হবে। লন্ডন কিন্তু বেশি দূর না।’

তিনি আরও লিখেছেন- ‘টাকা গেছে লন্ডনে, হামলা হবে পল্টনে? সবই যোগ্য ব্যক্তিদের মনোনয়ন না দেয়ার ফল। টাকাই সব না’

তার এমন ভয়াবহ অভিযোগ বিএনপির এবারের নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রদানের বিরুদ্ধে উত্থিত অভিযোগকে আরও উস্কে দিয়েছে। এবার বিএনপির মনোনয়ন প্রার্থীদের মধ্যে যাদেরকে দল নির্বাচিত করেছে, তাদের অনেকের বিরুদ্ধেই জন সম্পৃক্ততা না থাকা, অর্থের বিনিময়ে মনোনয়ন সংগ্রহসহ নানাবিধ অভিযোগ উঠেছিল। ইতিমধ্যেই মনোনয়নকে কেন্দ্র করে বঞ্চিতদের সমর্থকদের দ্বারা বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ কয়েকজন নেতা লাঞ্ছিত হয়েছেন। দলের চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে হামলা, ভাঙচুরের মতো ঘটনাও ঘটেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে মনোনয়নের লোভ দেখিয়ে ইজ্জত হরণ বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে ও বিএনপির জন্য একটি কলঙ্কজনক অধ্যায় হিসেবে বিবেচিত হবে।

এ নিয়ে সরব হয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী মনির খান। ‘বিএনপির রাজনীতি করা ছিল জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল’ বলে উল্লেখ করে এরইমধ্যে বিএনপির রাজনীতি থেকে ইস্তফাও দিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, মনি আপা যে অভিযোগটি করেছেন, সেটি অবিশ্বাসও করতে পারছি না। কারণ এবারের মনোনয়নকে কেন্দ্র করে যা ঘটেছে, সেই বিশৃঙ্খল অবস্থা দেখে রাজনীতির ওপরে বীতশ্রদ্ধ হয়ে পড়েছি আমিও।

এদিকে খালেদা জিয়ার প্রয়াত পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমানের ‘বিশেষ আবদারের কারণে’ বাদ পড়েন চাঁদপুর-১ (কচুয়া) আসনের জনপ্রিয় নেতা বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এবং সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহছানুল হক মিলনের মতো হেভিওয়েট প্রার্থী। গুঞ্জন উঠেছে, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জের ধরেই শর্মিলার আবদারে মনোনয়ন পেয়েছেন অজনপ্রিয় নেতা মোশাররফ হোসেন। যা নিয়ে সমর্থকরা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে এমন লঙ্কাকাণ্ড দেখে মনোনয়ন পেতে ব্যর্থ বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সিনিয়র সদস্য এবং ব্যারিস্টার, নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেসরকারি টেলিভিশনকে জানান, বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেও দল আমাকে বিবেচনায় নেয়নি। আমিও দলের রাজনীতি এবং বর্তমান অবস্থা দেখে হতাশ। মনোনয়ন নিয়ে যা ঘটছে, তা দেখে বিএনপির ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি এখন শঙ্কিত ।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *