Sharing is caring!

ইসলামিক ফাউন্ডেশন মহাপরিচালকের

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সফর : সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-মাদক

প্রতিরোধের আহবান

স্টাফ রিপোর্টার

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের প্রতিষ্ঠা করা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল এর চাঁপাইনবাবগঞ্জ সফর উপলক্ষে প্রশিক্ষন কর্মশালা হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমী অডিটরিয়ামে। মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের শিক্ষক ও দারুল আরকাম এবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষকদের নিয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরু হওয়া দিনব্যাপী কর্মশালায় বিকেলে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক এ.জেড.এম নূরুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার টি.এম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম, জেলা কালচারাল অফিসার ফারুকুর রহমান ফয়সাল, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা মো. সোহরাব আলী।  স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আবুল কালাম। সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কারাগার মউশিক শিক্ষক হাফেজ মাওলানা মো. হেদায়েতুল্লাহ’র তিলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া প্রশিক্ষন কর্মশালায় সকালে অতিথি ছিলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ঢাকা অফিসের মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. মুস্তাফিজুর রহমান, সহকারী পরিচালক মো. মিজানুর রহমান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. সেলিম সরকারসহ অন্যরা। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ইসলামে জিহাদের কথা বলা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু কোন অবস্থায় এবং কোনভাবে জিহাদ করতে হবে সেটিও বলা আছে। বর্তমানে কিছু ধর্মান্ধ জিহাদের অপব্যাখ্যা করে রাষ্ট্রের সম্পদ নষ্ট, সাধারণ মানুষের চলাচলে বাধা সৃষ্টি, রাস্তায় গাছ কেটে ফেলে রেখে পরিবেশ ও মানুষের ক্ষতি করা, সাধারণ মানুষকে ভুল বুঝিয়ে ইসলামে জিহাদের নামে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তিনি এসব বিভ্রান্তি থেকে দূরে থেকে ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা জেনে বুঝে চলার জন্য সাধারণ মানুষের প্রতি আহবান জানান। ইসলামের যথাযথ শিক্ষা দেয়ার জন্যই জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সারা দেশে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের আওতায় হাজার হাজার শিশুদের ইসলামি শিক্ষাসহ সাধারণ শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। তিনি ইমামদের উদ্দেশ্যে বলেন, মসজিদের মিম্বারে দাঁড়িয়ে হাদিস কোরআনের সঠিক তথ্য সাধারণ মানুষদের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে সমাজ থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধের আহবান জানান। দিনব্যাপী হামদ-নাথ পরিবেশন করেন শিক্ষক ও অন্যান্য কর্মকর্তারা। শেষে মিলাদ ও দোয়া হয়। মিলাদ পরিচালনা করেন মউশিক এর শিক্ষক ও ভাগ্যবানপুর মন্ডলপাড়া জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মো. সাখাওয়াত হোসেন। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মউশিক এর শিক্ষক ও মহাডাঙ্গা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মো. ময়েজউদ্দিন। এসময় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও জেলার বিভিন্নস্থানের মউশিক এর সহস্রাধিক শিক্ষক ও ইমামগণ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *