Sharing is caring!

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জে উন্নত পদ্ধাতিতে গাছ থেকে আম নামিয়ে এবং সংরক্ষন করে বাজারজাত করার মাধ্যমে দেশী-বিদেশী মুদ্রা অর্জণের জন্য আম চাষী, ব্যবসায়ী ও আড়ৎদারদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন গবেষকগণ। সাধারণভাবে গাছ থেকে আম পেড়ে বাজারজাত করায় আমে বিভিন্ন জীবানুর আক্রমন এবং আশানুরুপ আম পাওয়া যায় না। উন্নত পদ্ধতিতে আম বাজারজাত করলে খরচ একটু বেশী হলেও দাম পাওয়া যাবে অনেক বেশী। উন্নত পদ্ধতিতে আম বাজারজাত করলে বিদেশেও আগ্রহ বেড়ে যাবে। অর্জন হবে বিদেশী মুদ্রা। এতে লাভবান হবে চাষী ও ব্যবসায়ীরা। তাই উন্নত পদ্ধতিতে আম বাজারজাত করবেন চাষী ও ব্যবসায়ীরা এমনটায় আশা গবেষকদের। উল্লেখ্য, আমের পোষ্ট হারভেস্ট ব্যবস্থাপনা ও প্রযুক্তি বিষয়ক ২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মশালা হয় চাঁপাইনবাবগঞ্জে। জেলার গোমস্তাপুর ও শিবগঞ্জ উপজেলার আম চাষী, ব্যবসায়ী ও আম আড়ৎদার নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আঞ্চলিক উদ্যানতত্ব গবেষণা কেন্দ্রের মিলনায়তনে এই প্রশিক্ষন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কোরিয়ান রুর‌্যাল ডেভেলপমেন্ট এ্যাডমিনিষ্ট্রেশনের আফাসি পোষ্ট হারভেস্ট প্রকল্পের আর্থিক সহায়তায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের বাস্তবায়নে এই কর্মশালায় প্রশিক্ষন প্রদান করেন আফাসি পোষ্ট হারভেস্ট প্রকল্পের প্রধান কারিগরি কর্মকর্তা ও প্রধান গবেষক ড. এস.এম খোরশেদ আলম। প্রশিক্ষক ছিলেন গাজিপুর বিএআরআই এর এফএসপিই বিভাগের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ নুরুল আমিন, পোষ্ট হারভেস্ট টেকনোলজি বিভাগের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ আতিকুর রহমান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ আঞ্চলিক উদ্যানতত্ব গবেষণা কেন্দ্রের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ হামিম রেজা ও উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ শরফ উদ্দিন। কর্মশালায় অংশ গ্রহণকারীদের উন্নত পদ্ধতিতে গাছ থেকে আম পাড়া এবং গরম পানিতে আম শোধন করার বিষয়ে বাস্তব প্রশিক্ষন প্রদান করা হয়। ২ দিনব্যাপী কর্মশালায় গোমস্তাপুর উপজেলার ২৫ জন এবং শিবগঞ্জ উপজেলার ২৫ জন আম আম চাষী, ব্যবসায়ী ও আৎড়ৎদার অংশ গ্রহণ করে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *