Sharing is caring!

“করোনা ভাইরাস” নিয়ে ‘দর্পণ টিভি’তে বিশেষ

আলোচনা অনুষ্ঠান

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

সমসাময়িক বিষয়ভিত্তিক আলোচনার অংশ হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের একমাত্র অনলাইন টেলিভিশন ‘দর্পণ টিভি’ স্টুডিওতে ‘করোনা ভাইরাস’ নিয়ে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ‘দর্পণ টিভি’ স্টুডিওতে চলে এই সরাসরি আলোচনা অনুষ্ঠান। “করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে করণীয়” বিষয়ে ‘দর্পণ টিভি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জুর প্রযোজনায় ও ‘এরফান গ্রæপ’র সৌজন্যে সরাসরি সম্প্রচারিত এ বিশেষ অনুষ্ঠানে “দর্পণ স্টুডিও” তে অংশ নেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধূরী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ডায়াবেটিক সমিতির চিকিৎসক বিশেষজ্ঞ ডা. দুররুল হোদা ও রাজশাহী শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অর্থপেডিক সার্জারী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান হাড়-জোড়, বাত ব্যথা, মেরুদন্ড ও পঙ্গুরোগ বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা. আল মামুন। করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন ‘দর্পণ টিভি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু। কারিগরি সহায়তায় ছিলেন ‘দর্পণ টিভি’র আইটি বিভাগের কর্মকর্তা রফিকুজ্জামান রকি ও ‘দর্পণ’ এর প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও বিজ্ঞাপন বিভাগের ম্যানেজার মো. নুরুল ইসলাম। আলোচনায় অতিথিগণ করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সচেতনতা সৃষ্টি, হাচি-কাশি হলে হাত ধুয়ে পরিস্কার করা, হাঁচির সময় মুখে হাত না দিয়ে কনুই ব্যবহার, হাত ব্যবহার করলে, যেসকল কাজে হাতের ব্যবহার হয় সেগুলোয় ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশংকা থাকায় হান্ডসেফ করা বা কোলাকুলি করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেন। বক্তারা আরও বলেন, ছোট শিশুদের বেলায় মায়েরা দ্রæতই কোলে নিয়ে আদর করে তারপর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন হয়, এ ক্ষেত্রে আগেই পরিস্কার হয়ে সন্তানকে কোলে নেয়া বা আদর যতœ করার পরামর্শ দেন অতিথিগণ। আলোচনায় কোন প্রকৃতির মানুষের এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বিষয়ে আলোচকগণ বলেন, শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যাদের কম, সাধারণত তারাই বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। সেক্ষেত্রে ডায়াবেটিক রোগীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেকটায় কম এবং দূর্বল থাকায় ডায়াবেটিক রোগীদের খুব সতর্ক থাকা প্রয়োজন। কিডনী, ক্যান্সার, ডায়াবেটিক আক্রান্ত রোগীদের বিশেষ সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন আলোচকগণ। মাস্ক বিষয়ে আলোচনায় উঠে আসে, যেভাবে সাধারণ মানুষ মাস্ক কিনে বাজার হুলুস্থুল করে ফেলছেন, এটা নিছক ব্যাপার। করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সাধারণ মাস্ক কোন কাজে আসবে না। শুধুমাত্র করোনাই আক্রান্ত রোগীর বিশেষ মাস্ক ব্যবহার করা প্রয়োজন। করোনা কোন মারাত্মক কিছু নয়, নিজেরা সচেতন বা চিকিৎসকের পরামর্শ মোতাবেক ব্যবস্থা নিলেই রোগী স্বুস্থ হয়ে উঠবেন বলেও জানান অতিথিগণ। সর্বপরি কনোরা ভাইরাস নিয়ে জেলায় কোন প্রকার ভীতি বা আতংকিত হওয়ার কোন সম্ভাবনা বা পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি উল্লেখ করে এবং সকলকে সতর্কতা অবলম্বন করার অনুরোধ জানিয়ে সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক জেলা প্রশাসন ও জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ যৌথভাবে আলোচনার মাধ্যমে জেলায় সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বিদেশ থেকে আসা মানুষদের উদ্যোগেই ১৪দিন করেনটাইনে থাকা দরকার। এছাড়া কোন প্রকান সমস্যা মনে হলেই নিকটবর্তী স্বাস্থ্যকর্মীর সাথে যোগাযোগ করতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা ভাইরাস কে মহামারী ঘোষণা করলেও বাংলাদেশে বা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় এর কোন প্রভাব পড়েনি। জেলায় গঠিত ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি সর্বক্ষনই করোনা নিয়ন্ত্রনে সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। তিনি আরও বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২টি বন্দরেই মেডিকেল টিম কাজ করছে। ভারত থেকে আসা কোন বাংলাদেশী বা ভারতীয়দের পরীক্ষা করে কোন করোনা রোগী পাওয়া যায়নি। সিভিল সার্জন জেলাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলায় করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রনে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জেলার সদর আধুনিক হাসপাতালে ৪ বেড বিশিষ্ট একটি আলাদা করোনা কর্ণার তৈরী করা হয়েছে এবং জেলার শিবগঞ্জ, গোমস্তাপুর, নাচোল ও ভোলাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২টি করে বেড নিয়ে আলাদা করোনা কর্ণার করা হয়েছে। জেলার সকল ক্লিনিকে একটি করে বেড করোনা রোগীর জন্য বরাদ্দ রয়েছে। চিকিৎসকগণ সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করে সতর্কাবস্থায় দায়িত্বরত আছেন। এছাড়া জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক কে প্রধান করে ও সিভিল সার্জন ডাক্তার জাহিদ নজরুল চৌধূরীকে সদস্য সচিব করে জেলা করোনা নিয়ন্ত্রন কমিটি গঠন করা হয়েছে। সকল উপজেলাতেও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের প্রধান করে উপজেলা করোনা নিয়ন্ত্রণ কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলায় অতিরিক্ত করোনা রোগী হলে, তাদের চিকিৎসার জন্য জেলার পিটিআই ভবনে আইসুলেশন ওয়ার্ড হিসেবে স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর সোনামসজিদে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য মেডিকেল দল কাজ করছে। জেলার পিটিআই ভবনে আইসুলেশন ওয়ার্ড হিসেবে স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি জেলার মানুষদের আতংকিত বা গুজবে কান না দিয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্নভাবে থাকার এবং প্রয়োজন হলে স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে দ্রæত যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। শেষে আলোচনায় অংশগ্রহণকারী অতিথিগন চাঁপাইনবাবগঞ্জে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজনে ‘দর্পণ টিভি’ স্টুডিওতে আমন্ত্রণ জানানোয় ‘দর্পণ টিভি’ কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান। আগামীতেও এধরণের আলোচনা আয়োজনে ‘দর্পণ টিভি’ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধও জানান। আলোচকগণ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় এধরণের একটি প্রতিষ্ঠান অনলাইন টেলিভিশন ‘দর্পণ টিভি’ (অনলাইন) প্রতিষ্ঠা ও জেলার সম্মান এগিয়ে নিতে অবদান রাখায় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ্য, কয়েকমাস ধরেই চাঁপাইনবাবগঞ্জের একমাত্র অনলাইন টেলিভিশন ‘দর্পণ টিভি’ স্টুডিওতে বিশেষ দিবস ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন ও সরাসরি সম্প্রচার করে আসছে ‘দর্পণ টিভি’।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *