Sharing is caring!

QRCপ্রেস বিজ্ঞপ্তি \ বিশিষ্ট শি¶ানুরাগী, ব্যবসায়ী, বিজিবিএইচ-এফ’র সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক (ইউএপি) এর ট্র্যাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান কাইউম রেজা চৌধুরী এশিয়া এডুকেশন এওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন। এশিয়ার বিশিষ্ট শি¶াবিদগণের সমš^য়ে গঠিত জুরি বোর্ড তাঁকে ২০১৬ সালের জন্য এই সম্মানজনক পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেন। আগামী ৫ আগস্ট, ২০১৬ তারিখে সিঙ্গাপুর প্যান প্যাসিফিক মেরিনা স্কয়ারে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব শি¶া কংগ্রেসে এডুকেশন লিডারশীপ এওয়ার্ড-২০১৬ প্রদান করা হবে। এশিয়ার শিক্ষা এক্সেলেন্স একটি আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন পুরস্কার। সিএমও এশিয়া, বিশ্ব শিক্ষা কংগ্রেস এর গবেষণা সহযোগী হিসেবে, এশিয়ার শ্রেষ্ঠ ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে যাঁরা ¯^ ¯^ ক্ষেত্রে রোল মডেল বা দৃষ্টান্তমূলক নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাদেরকে এ মর্যাদা সম্পন্ন পুরস্কারে ভূষিত করেন। যারা অন্যের জীবনে একটু পার্থক্য করেন, যাদের কাজ ও দৃষ্টিভঙ্গি সমাজ পরিবর্তনে অবদান রাখে, বিশেষত একটি ইতিবাচক বা মূল পার্থক্য তৈরি করেছেন তাঁদেরকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনিত করা হয়। উল্লেখ্য, জনাব চৌধুরী একমাত্র ব্যক্তি যিনি প্রাইভেট সেক্টর থেকে এ মনোনয়ন পেলেন। জনাব চৌধুরী ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং তিনি দেশের বিভিন্ন স্থানে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা স্থাপন করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে ‘ঢাকা সিটি মহিলা-বাণিজ্যিক মহাবিদ্যালয়, হাজী এহশান মোহাম্মাদ কারিগরী কামিল মাদরাসা, শহীদ জাতীয় চার নেতা আনক টিবিএম কলেজ, শাহনেয়ামতুল্লাহ ও সৈয়দা শরীফ ব্যবসা ব্যবস্থাপনা কলেজ, শেখ হাসিনা ও ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া আনক টিবিএম কলেজ, চর জগন্নাথপুর আনক কারিগরী দাখিল মাদরাসা ও সোনামসজিদ বীরশ্রেষ্ঠ  মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর ডিগ্রি কলেজ ইত্যাদি। বিশিষ্ট রাজনীতিক-সমাজসেবী ‘কাইয়ুম রেজা চৌধুরী’ ১৯৫০ সালের ২ জানুয়ারী চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষার বিখ্যাত ‘চৌধুরী-জমিদার পরিবারে’ জন্মগ্রহণ করেন। উপমহাদেশের প্রখ্যাত রাজনীতিক, সাবেক অর্থমন্ত্রী (তৎকালীন পাকিস্তান সরকার), চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃতি সন্তান ‘মোর্তজা রেজা চৌধুরী’ হলেন তাঁর পিতা। তাঁর মাতার নাম বেগম রোকেয়া চৌধুরী। ঢাকার সেন্ট জোসেফ হাইস্কুল থেকে ম্যাট্রিকুলেশন এবং ঢাকা নটরডেম কলেজ থেকে তিনি কৃতিত্বের সাথে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করেন। মেধাবী ছাত্র ‘কাইয়ুম রেজা চৌধুরী’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর  ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৭৪ সাল থেকে শিল্প-ব্যবসাকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করেন এবং পরবর্তীতে তিনি দেশের একজন অন্যতম সফল ব্যবসায়ী-শিল্পপতি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। এছাড়া তিনি ঢাকা ওয়ারী ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট, আবহনী ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, ব্যবসা-বাণিজ্য ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে একজন সুপরিচিত ব্যক্তিত্ব। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাসহ কেন্দ্রীয় পর্যায়ে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থেকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে তিনি সংসদ নির্বাচনও করেছেন। বিষয়টি এক প্রেসনোটে নিশ্চিত করেন ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক সহকারী পরিচালক-জনসংযোগ ওবায়দুল্লাহ আল জাকির।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *