Sharing is caring!

গোদাগাড়ীতে নতুন পদ্ধতিতে শীতের সবজি চাষ

♦ গোদাগাড়ী প্রতিনিধি

জলবায়ু পরিবর্তনের পাশাপাশি পরিবর্তন হতে চলেছে চাষাবাদের ধরণও। তাই কৃষিজীবিরা অধিক মুনাফার আশায় মৌসুমের আগেই ফসলও চাষ করছেন। এবছর গোদাগাড়ী উপজেলার কাঁকনহাট এলাকায় বরেন্দ্র অঞ্চলে নতুন পদ্ধতিতে শীতের সবজি আগাম বেগুন চাষ করেছেন। বর্ষাকালে যে কোন সময় বৃষ্টিতে তলিয়ে যেতে পারে ক্ষেত। আর সবজির জমি বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হলে লোকসানের অন্ত নেই। সেই ঝামেলা থেকে বাঁচতে অনেক কৃষক এবার নতুন পদ্ধতিতে বেগুন চাষ করছেন। চারাগুলোকে পানির হাত থেকে বাঁচাতে জমিতে বিছিয়ে দেয়া হয়েছে পলিথিন। নিদিষ্ট দুরত্বে সেই পলিথিনের ছিদ্র দিয়েই বেগুনের চারাগুলো বের করা হয়েছে। চারাগুলোকে বৃষ্টির পানি থেকে রক্ষা করতেই এ ব্যবস্থা। কাঁকনহাট এলাকায় অনেক চাষি এ পদ্ধতি অবলম্বন করেছেন। কয়েকজন সবজি চাষি জানান, প্রতি বছর লাগাতার বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতায় সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বর্ষার পানির কারণে অনেক চাষি ক্ষতির মুখে পড়েন। সে জন্য এবার তারা এ পদ্ধতিতে বেগুন চারা লাগিয়েছেন। তারা আরো জানান, গত বছর অনেক সবজি ক্ষেত পুরোপুরি নষ্ট হওয়ায় চাষিরা পুঁজি হারিয়ে দিশেহারা হয়েছেন। জলাবদ্ধতার শিকার সবজি চাষিরা বিপুল পরিমান ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছিল। কাঁকনহাট এলাকার সবজি চাষি রাকিব জানান, প্রথমে বেগুনের সারি করা হয়। এরপরে জমিতে পলিথিন বিছিয়ে দেয়া হয়। সেই পলিথিন ছিদ্র করে নির্দিষ্ট দুরে দুরে বেগুনের চারা লাগানো হয়। এতে চারার গোড়াতে বৃষ্টির পানি জমতে পারে না। পলিথিনের উপর দিয়ে বৃষ্টির পানি নেমে যায়। এই এলাকার আরেক কৃষক শহিদুল জানান, এবারেই তারা নতুন এ পদ্ধতিতে বেগুন চাষ করছেন। বর্ষা পুরো নামেনি। তবে যেটুকু বৃষ্টি হয়েছে তাতে কোন ক্ষতি হয়নি বেগুন গাছের। ভালো ফলনও আশা করছে কৃষক।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *