Sharing is caring!

সফিকুল  ইসলাম গোদাগাড়ী থেকে \ রজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় সোনালী ব্যাংকের ১টি মাত্র শাখা হওয়ায় গ্রাহকদের দুর্ভোগ চরমে। গোদাগাড়ী উপজেলার আয়তন ৪৭৫.২৬ বর্গ কিলোমিটার। এ উপজেলার জনসংখ্যা ৩ লক্ষ ৩০ হাজার ৯শ’ ২৬ জন। স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা মিলে ২৬৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ৯ টি ইউনিয়ন,২ টি প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা, ১টি মডেল থানা, ২টি পুলিশ ফাঁড়ী, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১টি, ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ১টি, বিভিন্ন এনজিও, কলকারখানা, ইন্ডাষ্ট্রিজসহ বিভিন্ন ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান এ উপজেলায় রয়েছে। সোনালী ব্যাংকের ১টি মাত্র শাখা উপজেলা সদরে অবস্থিত হওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে গ্রাহকদের গ্রাহক সেবা নিতে আসতে অনেক দূর্ভোগের স্বীকার হতে হয়। এমনকি একজন গ্রাহককে প্রায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার দুর থেকে উপজেলা সদরে এসে সোনালী ব্যাংক থেকে গ্রাহক সেবা নিতে হয়। এতে করে ওই গ্রাহক সারাদিন আর কোন কাজ করার সুযোগ পাই না। সোনালী ব্যাংকের একটি মাত্র শাখা হওয়ায় বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারিদের বেতন ভাতা, বিভিন্ন এনজিও ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের লেনদেনসহ বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য গ্রাহক সেবা নিতে এসে গ্রাহকদের ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে লাইন নিয়ে গ্রাহক সেবা নিতে হয়। দুর-দুরান্ত থেকে বৃদ্ধদের গ্রাহক সেবা নিতে আসতে হয় উপজেলা সদরে সোনালী ব্যাংকের এ শাখায়। ৩৫ কিলোমিটার দুর থেকে চব্বিশ নগর এলাকার শিক্ষক আলতাব হোসেন সোনালী ব্যাংকে বেতন ভাতার টাকা উত্তোলন করতে এসে বলেন, যে দিন বেতন ভাতার টাকা উত্তোলন করতে আসি সেই দিন আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়া হয় না। প্রতিষ্ঠান থেকে ছুটি নিয়ে এসে বেতন ভাতার টাকা উত্তোলন করতে হয়। যদি ২/৩ কিলো মিটারের মধ্যে সোনালী ব্যাংকের অন্য একটি শাখা থাকতো তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ছুটি নেওয়া লাগতোনা। ধানের চাতাল ব্যাবসায়ী  রবিউল বলেন, বাইরের জেলা থেকে সোনালী ব্যাংকে টিটি আসলে ব্যবসার ক্ষতি করে প্রায় ২০ কিলোমিটার দুরে উপজেলা সদরে গিয়ে সোনালী ব্যাংকে যেতে হয়। যার ফলে ব্যাবসার টাকা লেন-দেনে চরম ভোগান্তী পোহাতে হয়। সোনালী ব্যাংকে গ্রাহক সেবা নিতে আসা ৬০ বছরের বৃদ্ধ হাফিজ উদ্দিন বলেন, বৃদ্ধ বয়সে ৮/১০ মাইল দুর থেকে সোনালী ব্যাংকে আসতে হচ্ছে। অথচ এ উপজেলায় অন্য ব্যাংকের ৪টি ৫টি করে শাখা বিভিন্ন এলাকায় থাকায় অন্য ব্যাংকে গ্রাহক সেবার প্রয়োজন হলে এত কষ্ট করতে হয় না। উপজেলাবাসী সোনালী ব্যাংকের গ্রাহকদের গ্রাহক সেবার দূর্ভোগ কমাতে গোদাগাড়ী উপজেলায় সোনালী ব্যাংকের শাখা বৃদ্বি করার জন্য উর্দ্ধোতন কতৃপক্ষের সুভদৃষ্টি কামনা করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *