Sharing is caring!

goda photo 1vwv9-12-15গোদাগাড়ী  প্রতিনিধি \ পৌর নির্বাচন আর মাত্র ৮ দিন বাঁকী। এই ৮ দিনকে সামনে রেখে ব্যস্ত প্রার্থীদের সাথে সাথে সাধারন কর্মী ও সমর্থকরাও। গোদাগাড়ী পৌরসভায় লড়াই করছেন মেয়র পদে ৪ জন, সাধারন কাউন্সিলার পদে ৪৩ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলার পদে ১১ প্রার্থী। দিন যত ঘনিয়ে আসছে প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারনা নিয়ে ততই ব্যস্ত হয়ে উঠছে প্রার্থী, কর্মী ও সমর্থকরাও, ব্যানার, ফেসটুন ও পোষ্টারে গোদাগাড়ী পৌর এলাকা সেজেছে অপরুপ সােেজ। কমতি নেই কোন প্রার্থীর ব্যানার, ফেসটুন ও পোষ্টারের। সবাই যেন জয়ের প্রতিযোগিতায় ছুটছে কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে নিয়ে ভোটারের দ্বারে দ্বারে। প্রার্থীরা ভোটারদের ভোট পাওয়ার জন্য নতুন নতুন কৌশল নিয়ে ভোটারদের মাঝে গিয়ে দাঁড়াচ্ছে। মেয়র প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয়ের দৌড়ে এগিয়ে থাকলেও কোন অংশে পিছিয়ে নেই কাউন্সিলার প্রার্থীরা। কোন কোন ওয়ার্ডের কাউন্সিলার প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারনায় মেয়র প্রার্থীদের হার মানিয়েছে। গোদাগাড়ী পৌর সভার প্রতিটি ওয়ার্ড ঘুরে দেখা যায় নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে কর্মী ও সমর্থকদের ভোট চাওয়ার ব্যস্ততা। তবে, সাধারন ভোটারদের মাঝে কাউন্সিলারদের চাইতে মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে উৎসাহ বেশী দেখা যাচ্ছে। রাস্তা ঘাটে, মোড়ে মোড়ে, পাড়া মহাল্লায় ও চায়ের দোকানে মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। নিজ নিজ সমর্থীত প্রার্থীদের জয়ের জন্য সাধারন কর্মী ও সমর্থকরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছে নানান গুনোগানে। কেউ যেন হার মানতে নারাজ তার নিজ প্রার্থীর গুনোগানে। থেমে নেই মাইকিং। মাইকিং এর জন্য মাইক ব্যাবসায়ীদের পাশাপাশি অটোরিক্সা চালকদের বইছে সুদিন। গোদাগাড়ী পৌর নিবাচনে জামায়াতের আমিনুল ইসলাম (জগ প্রতিক), আ”লীগের মনিরুল ইসলাম বাবু (নৌকা প্রতিক), বিএনপির  আনোয়ারুল ইসলাম (ধানের শীষ প্রতিক), ও জাতীয় পাটির গোলাপ হোসেন (লাঙ্গল প্রতিক) নিয়ে লড়াই করছে জয়ের প্রতিযোগিতায়। এদিকে দলীয় প্রতিকে পৌর নির্বাচন হওয়ায় প্রতিকও ফ্যাক্টর হয়ে দাড়িয়েছে মেয়র প্রার্থীদের জন্য। মেয়র প্রার্থীদের নিজ দলের নেতা কর্মীদের মান ভঞ্জন করতে দেখা যাচ্ছে। মান ভঞ্জন করতে সাধারন ভোটার বাদ দিয়ে দলের নেতা কর্মীদের পিছনেও ছুটতে হচ্ছে মেয়র প্রার্থীদের। গোদাগাড়ী পৌরসভা মর্যাদার লড়াইয়ে পড়েছেন এলাকার ৩ হেভীওয়েট নেতা সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। তারা সরাসরি ভোটের মাঠে না থাকলেও তাদের কৌশল অবলম্বন করেই প্রার্থীরা চষে বেড়াছেন ভোটের মাঠ। সাধারণ ভোটাররা জয়-পরাজয়ের হিসাব নিকাশ কশতে পিছিয়ে নাই। তারা বলছেন ত্রিমুখী লড়াই হবে এবার গোদাগাড়ী পৌরসভায়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *