Sharing is caring!

গোমস্তাপুরে শতবর্ষী অজ্ঞাত অসহায় বৃদ্ধা মহিলার দায়িত্ব নিলেন পুলিশ

♦ গোমস্তাপুর প্রতিনিধি 

মহানুভবতার এক দৃষ্টান্ত। গোমস্তাপুরে অসহায় অজ্ঞাতনামা শতবর্ষি বৃদ্ধা এক মহিলার দায়িত্ব নিয়ে চিকিৎসাসহ অন্যান্য সকল ভার নিয়েছেন পুলিশ সদস্যরা। এলাকার মানুষ কেউ এগিয়ে না আসলেও অবশেষে শতবর্ষী অজ্ঞাত ওই অসহায় বৃদ্ধা মহিলাকে পুলিশ উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়েছেন। রহনপুর তদন্ত কেন্দ্রের আইসি আব্দুল মালেক, এএসআই তৌহিদুল ইসলাম ও পুলিশের বিশেষ শাখার ডিএসবির নুরুন্নবী। জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেল স্টেশনের ২নং প্লাটফর্মে শতবর্ষি বৃদ্ধা এক মহিলাকে রেখে চলে যায় স্বজনরা। প্রায় ১৪ দিন ধরে রহনপুর রেল স্টেশন চত্ত¡রে একটি তেঁতুল গাছের পাশে পৌষের তীব্র শীতে সে কাঁপছে। রোববার সকালে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় শীতের তীব্রতায় সে ঠকঠক করে কাঁপছে। এমন সংবাব পেয়েই ছুটে আসেন পুলিশের ওই সদস্যরা। উদ্ধার করে ওই বৃদ্ধা মহিলার সমস্ত দায়ভার নিয়েছেন তাঁরা। এদিকে সিরাজুল নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি তার দেখ-ভাল করে মানবতার পরিচয় দিয়েছেন। এখন ওই বৃদ্ধার স্বজনদের ঠিকানা উদ্ধার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন সচেতন মহল। উল্লেখ্য, শতবর্ষী এক অজ্ঞাত বৃদ্ধাকে রহনপুর রেল স্টেশনের ২নং প্ল্যাটফর্মে রেখে চলে যায় স্বজনরা । ১৪ দিন ধরে রহনপুর রেল স্টেশন পার্শ্ববর্তী তেঁতুল গাছের পাশে পড়ে থাকেন বৃদ্ধা। শীতের তীব্রতায় সে ঠকঠক করে কাঁপছিলো। সে ঠান্ডায় কোন কথা বলতে পারছেনা, ফলে তার পরিচয়ও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। শীত থেকে বাঁচতে সে খড়ের বিছানা করে শুয়ে ছিলো। পরনে একটি পুরোনো উলের সুয়েটার সাথে একটি কম্বল। স্থানীয়রা জানান, প্রায় ১৪ দিন আগে স্বজনরা তাকে ভ্যান গাড়ী যোগে তাকে প্লাটফর্মে ফেলে রেখে যায়। তারপর থেকে কেউ তার কোন খোঁজ খবর নেয়নি। সিরাজুল নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি তার খোঁজ খবর রাখছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *