Sharing is caring!

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি করার অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের অহেদপুর বিট

খাটাল অনুমোদন না দেয়ার দাবীতে

সংবাদ সম্মেলন

♦ চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার অহেদপুর বীট-খাটালের অনুমোদন এর বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়ন সভাপতি এস.এম আল আমিন জুয়েল। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবে বর্তমান রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এর বিকৃত ও অশ্লীলভাবে ছবি ফেসবুকে প্রচারকারী বিএনপি কর্মী শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চরপশ্চিম গ্রামের নুরুল ইসলাম অরফে লুধা ঘোষের ছেলে মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর নামে শিবগঞ্জ উপজেলার অহেদপুর বিটের অনুমোদন না দেয়ার দাবীতে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। শিবগঞ্জ উপজেলা পাঁকা ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন এবং স্থানীয় সাধারণ সচেতন মানুষের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে অহেদপুর বীট/খাটালের বিষয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এস.এম আল আমিন জুয়েল। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ১৩ এপ্রিল/২০১৮ বেলা ২টা ৩০মিনিটে বর্তমান রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এর বিকৃত ও অশ্লীলভাবে ছবি ফেসবুকে প্রচারকারী বিএনপি কর্মী শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চরপশ্চিম গ্রামের নুরুল ইসলাম অরফে লুধা ঘোষের ছেলে মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর নামে শিবগঞ্জ উপজেলার অহেদপুর বিটের অনুমোদনের জন্য জোর তৎপরতা চালাচ্ছে একটি মহল। সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, এই মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর নামে অহেদপুর বিট/খাটাল অনুমোদনের তৎপরতায় রয়েছে জেলা আওয়ামীলীগের কতিপয় নেতা। মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর নামে কোন বিট খাটাল যেন অনুমোদন না দেয়া হয়, সেজন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ ১ (শিবগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য একটি ডিওলেটারও দিয়েছেন। শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগও বিএনপি-জামায়াতের অর্থ সরবরাহকারী ও অন্যতম পৃষ্ঠপোষক মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া দাবীও জানিয়েছে। বিগত দিনে অহেদপুর ও জোহরপুর টেক এর বিট/খাটালের অনুমোদন নিয়ে মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন ও আসাদুজ্জামান কনক উভয়ে মিলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়েছেন এবং এসব টাকা বিএনপি-জামায়াতের সংগঠনের কাজে ব্যবহার করেছেন বলেও অভিযোগ করা হয় সম্মেলনে। অজ্ঞাত কারণে পাঁকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল হোসেন মাস্টারের সীল ও ¯^াক্ষর জাল ও নকল কাগজপত্র তৈরীর করে মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপনকে আওয়ামীলীগ কর্মী বানিয়ে অহেদপুর বিট/খাটাল আবারও অনুমোদনের ষড়যন্ত্র চালানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয় সম্মেলনে। সম্মেলনে আরও বলা হয়, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা, শিবগঞ্জ উপজেলা শাখা কৃষকলীগের সহ-সম্পাদক ও বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি এস.এম আল আমিন জুয়েল রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এর বিকৃত ও অশ্লীলভাবে ছবি ফেসবুকে প্রচারের অভিযোগে ২০১৮ সালের ১৯ এপ্রিল শিবগঞ্জ থানায় ৫৭ ধারায় মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপন এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। শিবগঞ্জ থানার মামলা নম্বর ৩৭, জিআর নম্বর-২৭৬/১৮। এঘটনায় গত ২৯ মে-২০১৮ সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে আরও একটি মামলা হয় মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপনের বিরুদ্ধে। পিটিশন মামলা নম্বর-৮৯/২০১৮। এই মামলা থেকেও বাঁচাতে উপর মহলে তদবির করে আওয়ামীলীগেরই কতিপয় নেতা। এতবড় ঘটনার আসামী রিপন অবশ্য বর্তমানে আদালতের জামিনে রয়েছে। জামিনে বেরিয়ে এসে মামলার বাদী বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি এস.এম আল আমিন জুয়েলকে প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে চলেছে বলেও লিখিতভাবে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়। সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মো. মামুন অর রশিদ ও সাবেক ছাত্রলীগ কর্মী মো. সিরাজসহ অন্যরা। বর্তমান রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এর বিকৃত ও অশ্লীলভাবে ছবি ফেসবুকে প্রচারকারী বিএনপি কর্মী মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপনকে দ্রুত গ্রেফতারের জোর দাবী জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দে একইভাবে তদবির করে বিএনপি কর্মী মো. ওবাইদুর রহমান অরফে রিপনের নামে অহেদপুর বিট/খাটাল অনুমোদন দেয়া হয় এবং সেখান থেকে আয় করা অর্থ বিএনপি-জামায়াতের সংগঠনের কাজে লাগিয়ে দলের নেতা-কর্মীদের আস্থা অর্জন করে। এছাড়া এসব বিট/খাটালে বিএনপি-জামায়াতের কর্মীরাই কাজ করে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। আগামী নির্বাচনে এসব কর্মীরা সরকারের বিরুদ্ধে কাজ করে সরকারের উন্নয়ন কাজ থামিয়ে দিতেও দ্বিধা করবে না। বিষয়টি আওয়ামীলীগ ও স্থানীয় উর্ধ্বতন প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করার অনুরোধও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। এসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এমরান ফারুক মাসুম, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলামসহ অন্যান্য সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *