Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নবাব মিস্টান্ন ভান্ডারে কারখানায় কাজ করছে শ্রমিকরা ॥ চলছে বিক্রিও ॥ নিরব প্রশাসন

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের নিউমার্কেটস্থ নবাব মিস্টান্ন ভান্ডারের দ্বিতীয় তলায় সকাল থেকে ৭/৮জন লোক মিস্টিসহ অন্যান্য খাবার তৈরীর কাজ করছিলো। শনিবার বেলা ১১টার দিকে বিষয়টি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করা হলেও দুপুর পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। খোলা শরীরে এবং মাস্ক ছাড়াই একসাথে গাদাগাদি করে চুলা জ্বালিয়ে খাবার তৈরীর কাজ করছিলো শ্রমিকরা। করোনা ভাইরাস আতংকের সময় এমন দৃশ্য চোখে পড়লে প্রশাসনকে অবহিত করা হয়। এছাড়াও শহরের সকল মিস্টির দোকান বন্ধ হলেও বন্ধ হয়নি নবাব মিস্টান্ন ভান্ডারের নিউ মার্কেটস্থ মিস্টির দোকান। লুকানো দরজা দিয়ে প্রতিদিনই গোপনে ব্যবসা চালাচ্ছেন এবং কারখানার কাজও চলছে প্রতিদিনই। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ এবং অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা যখন মানুষের নিরাপত্তায় কাজ করছে এবং জেলার সকল রেস্তোরা, চায়ের দোকানসহ সকল দোকান (নিত্য প্রয়োজনীয় দোকান ছাড়া) বন্ধ রাখা হয়েছে, তখন নবাব মিষ্টান্ড ভান্ডারের শ্রমিকরা কিভাবে এবং কেন কাজ করার সুযোগ পেল বা করছিলো, দোকানে বিক্রি অব্যহত রয়েছে এবং অবহিত করার পরও কেন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি, এ নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে মানুষের মনে। এব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শনিবার দুপুরে জানান, নবাব মিস্টান্ন ভান্ডারে শ্রমিকরা কাজ করছে এমন সংবাদ পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে বিষয়টি জানিয়েছি। তিনি বলেন, ভ্রাম্যমান আদালত ছাড়া পুলিশের কিছু ব্যবস্থা নেয়ার নেই। ইউএনও মহোদয়কে নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কিন্তু ততক্ষনে সকাল থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কাজ করে শ্রমিকরা চলে যায়। তারপরও নবাব মিস্টান্ন ভান্ডার এলাকায় দেখা যায়নি প্রশাসনের কোন পদক্ষেপ। এদিকে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সুত্র জানায়, সরকারী নির্দেশনায় এক সপ্তাহেরও বেশী সময় আগে জেলার সকল মিস্টি ও চায়ের দোকান বন্ধ হলেও বন্ধ হয়নি শহরের নিউ মার্কেটের ‘নবাব মিষ্টান্ন ভান্ডার’। প্রতিদিনই গোপন দরজা দিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছেন এবং কারখানায় উৎপাদনও চলমান রয়েছে। তবে কেন, কিভাবে এবং কোন সহযোগিতায় এভাবে দোকানে বিক্রি অব্যহত রেখেছেন, সেটা বোধগম্য নয় বলে জানায় সুত্রটি। প্রাণঘাতি ভাইরাস করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের কারণে সরকারী নির্দেশনা তো সকলের জন্যই?

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *