Sharing is caring!

wvDwAvচাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার উপজেলা ও মফস্বল এলাকাগুলোতে কারণে-অকারণে বিদ্যুতের লোড সেডিং বন্ধ করা হোক। বিদ্যুৎ সংকটের কথা বলে যখন-তখন লোড সেডিং দিয়ে মফস্বল এলাকার মানুষের ভোগান্তি বাড়নো হচ্ছে। অথচ সরকারীভাবে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহের কথা বলার পরও এই অবস্থা, কোনভাবেই কাম্য নয়। বর্তমানে রমজান মাসে ইফতার, তারাবিহ ও সেহরীর সময় বিদ্যুৎ এর লোড সেডিং দেয়া হচ্ছে। ঠিক ঠিক ইফতার, তারাবিহ এর সময়েই কোন অজ্ঞাত কারণে লোড সেডিং হচ্ছে, সেটা বোধগম্য হওয়া যাচ্ছে না। এভাবে বিদ্যুতের লোড সেডিং জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে। লোড সেডিংএর কারণে রোজাদার, নামাজের মুসল্লী, শিক্ষার্থীরা পেড়েছে চরম বিপাকে। সারাদিন রোজা রাখার পর ভ্যাপসা গরমে এশার নামাজ এবং সাথে সাথে তারাবিহ এর নামাজের সময় বিদ্যুৎ না থাকলে কি অবস্থা দাঁড়ায় মুসল্লীদের, সেটা অবশ্যই অনুমান করা যায়। যখন-তখন লোড সেডিং এর কারনে শিক্ষার্থীরা ঠিকমত লেখাপড়া করতে পারছেনা। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এমন সময় বিদ্যুতের কারণে ভবিষ্যত প্রজন্মের এই অপুরনীয় ক্ষতি কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। তাই রমজানের মুসলমানদের ক্লান্তির কথা বিবেচনা করে এবং পরীক্ষার্থীদের কথা ভেবে হলেও লোড সেডিং বন্ধের জোর দাবি জানিয়েছেন জেলার ভুক্তভোগীরা ও সচেতন মহল। মফস্বল এলাকাতে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অফিস এবং বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া সাংবাদিকরা কাজ করেন। লোড সেডিং এর কারণে মফস্বলের মিডিয়া কর্মীদের বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হচ্ছে প্রায়শই। হঠাৎ করেই সময় নেই, যখন ইচ্ছা, তখনই লোড সেডিং এর নামে বিদ্যুৎ নেই। কি সকাল, কি দুপুর, কি রাত, যখন মন চায়, তখনই লোড সেডিং। দিনের মধ্যে অন্তত ২ থেকে ৩ বার লোড সেডিং দেয়া হচ্ছে মফস্বল এলাকায়। এভাবে লোড সেডিং হওয়ায় চরম ক্ষতি হচ্ছে কোমলমতি ছোট ছোট শিশুদেরও। সরকারিভাবে রমজানে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ এর সরবরাহ থাকার ঘোষণা দেয়া হলেও কেন এই জনদূর্ভোগ সৃষ্টিকারী এই লোডসেডিং। বিদ্যুৎ বিভাগের এক শ্রেণীর অসাধূ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার উদ্যেশ্যেই হয়তো এসব লোড সেডিং দিয়ে জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি করছে বলেও ধারণা করছেন অভিজ্ঞ মহল। বিষয়গুলোর সঠিক তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণে এগিয়ে আসবেন কর্তৃপক্ষ এমনটায় আশা করছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভুক্তভোগী গ্রাহকরা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *