Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সমাজ সেবক যুবক এ্যাড. নাদিম অবিরাম ছুটছেন মানবসেবায়

♦ স্টাফ রিপোর্টার

নিজ অর্থ দিয়ে আর্ত-পিড়িত, অসহায়-দরিদ্র, বেকার, ধর্মীয় বিভিন্ন কাজে সহায়তাসহ মানবসেবায় অবিরাম ছুটছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বারঘরিয়া ইউনিয়নের বিশ^াসপাড়ার যুবক এ্যাডভোকেট মোঃ সদিকুল ইসলাম নাদিম।

সাধারণ পরিবারে জন্ম নিয়েও অনেক কষ্ট করে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে আইনপেশাসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করার পরও সময় পেলেই সে ছুটে আসে নিজ জন্মভূমির মানুষের সেবা করার জন্য।

সরকারী চাকুরীর সুবাধে চাকুরীরত অবস্থায় যুবক এ্যাড. নাদিম সাধারণ মানুষের সেবা করার সুযোগ না পাওয়ায় এবং আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী না হওয়ায় মানব সেবার মন থাকলেও সেটা পেরে উঠেননি তিনি। চাকুরী থেকে অবসরে গিয়েই তিনি মনোযোগ দেন নিজ এলাকাসহ জেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর।

কোন মানুষের দুঃখ-দূর্দশার কথা শুনলেই তিনি ছুটে যান, সেই পরিবারের পাশে। নিজ সামর্থ মোতাবেক চেস্টা করেন সহযোগিতার। সেটা অর্থ দিয়ে হোক বা নিজ পরিচয়ে অনুরোধ করে হোক। আপ্রাণ চেষ্টা করেন বিপদ বা সমস্যা থেকে বের করে নিয়ে আসার জন্য। এমনই ইচ্ছার সাথে সাধারণ মানুষের সেবা করার জন্য জনপ্রতিনিধিত্ব করার কথাও মাথায় নিয়েছেন।

মানুষের সেবা করার জন্য শুধু অর্থ থাকলেই হবে না, একটি সেবার স্থানের প্রতিনিধিত্বও দরকার। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে তাই তাঁকে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশ গ্রহণের জন্য এলাকার বিশিষ্টজনেরা, সুধীজন, সমাজ সেবক, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সাধারণ মানুষ চাইছেন।

দীর্ঘদিন থেকেই তিনি নিজ ইউনিয়ন ও জেলার বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসহ মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন, অবসরপ্রাপ্ত বাংলাদেশ বিমান বাহিনী সদস্য ও জাতিসংঘ মেডেলিস্ট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শ্রমিকলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদকসহ দেশের বিভিন্ন সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণপদে দায়িত্বপালনকারী এ্যাডভোকেট মোঃ সদিকুল ইসলাম নাদিম সাম্প্রতিককালে গত ১৩ নভেম্বর লাহারপুর ১নম্বর ওয়ার্ডের নিবাসী অসুস্থ মোহাম্মদ ইব্রাহিম আলি কে দেখতে যান, তার পরিবারের খোঁজ খবর নেন এবং তাকে চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন।

এছাড়াও বারঘরিয়া বাজারের মসজিদের সদ্য মর্মান্তিক দূর্ঘটনায় আহত ইমাম সাহেব মো. আবুল কালাম এর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়ান এবং রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের সাথে যোগাযোগ করেন এবং প্রয়োজনে তিনি ঢাকা সিএমএইচ এর নিউরোলজিষ্ট দারা চিকিৎসা করার প্রতিশ্রতি দেন।

তিনি ১৪ নভেম্বর বারঘরিয়া দৃষ্টি নন্দন মাঠে বঙ্গবন্ধু মিনি ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এবং তরুণদের একটি দেশের ভবিষৎ প্রধান চালিকাশক্তি হিসেবে নিজেকে তৈরি করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হলে, এই মাঠটিকে তিনি দখলমুক্ত করবেন এবং তরুণদের খেলা ও দর্শকদের উপভোগের জন্য উপযোগি করে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। যুব সমাজকে মাদকসহ অন্যান্য অপরাধমূলক কর্মকান্ড থেকে সরিয়ে আনতে খেলা সামগ্রী প্রদান ও খেলা আয়োজনসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার কথাও বলেন।

এছাড়া তিনি নতুন বাজার গ্রামের দুটো পরিবারের মেয়ের বিয়ের জন্য আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন। একটি অসুস্থ অসহায় মেয়েকে ঢাকা আইসিডি ডি আর বি মহাখালীতে চিকিৎসার জন্য ব্যাবস্থাগ্রহনসহ আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি আরিফুল ও রনজিত নামের দুই জন বেকার যুবকের কর্মসংস্থানের ব্যাবস্থা করেছেন সম্প্রতি। এছাড়া তিনি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ৩টি কালিপুজো মন্দির পরিদর্শন করেন এবং কিছু দিকনির্দেশনা দিয়ে আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন। তিনি মসজিদ ও গৌরস্থানগুলোর উন্নয়ন করার কাজে হাত দিবেন এবং এতিম শিশুদের লেখাপড়া ও থাকা খাওয়ার ব্যাবস্থা গ্রহনসহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়নসহ এলাকার মানুষের যথাসম্ভব সেবার জন্য কাজ করে যাবেন বলে ২২ নভেম্বর রবিবার ‘চাঁপাই দর্পণ’ কে জানান। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সদর উপজেলার ৪নং বারঘরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণের জন্য ‘নৌকা’ প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী বলেও জানান এ্যাডভোকেট মোঃ সদিকুল ইসলাম নাদিম।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *