Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সীমান্ত এলাকার বিভিন্ন নদী পথে আসছে গরু। আর এসব গরুর মালিকের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে সরকারীভাবে দেয়া নীতিমালার তোয়াক্কা না করে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এসব অর্থ বিভিন্ন খাতে ব্যয় দেখিয়ে চলছে হরিলুট বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, সরকার কৃর্তক অনুমোদিত বিট খাটালের অজুহাতে স্বার্থন্বেষী বিট খাটালের মালিক ও গরু ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন সীমান্তের নদী পথে আমদানীকৃত শত শত গরু ভারত থেকে বাংলাদেশে আমদানী হচ্ছে। আমদানিকৃত গরুর রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রেও বড় ধরণে দূর্নীতি ও অনিয়ম চলছে। সূত্র জানায়, গত ১৮ আগষ্ট হতে শিবগঞ্জের রুবেলের নামে বিটের অনুমোদন হওয়ার পর থেকে এই পর্যন্ত মাসুদপুর বিওপির অধীনে গরু এসেছে প্রায় ৫’শ। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ভারত থেকে আমদানীকৃত গরুগুলো সরকারের নিয়ম অনুযায়ী জোড়া প্রতি ১ হাজার ১’শ টাকা এবং বিট খরচ ১৫০ টাকা। কিন্তু নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক গরু ব্যবসায়ীরা জানায়, নিয়ম উপেক্ষা করে ছোট গরু জোড়া প্রতি ৯ হাজার ও বড় সাইজের গরু জোড়া প্রতি ১১ হাজার টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। সরজমিনে এলাকা ঘুরে জানা গেছে, মাসুদপুর বিট খাটালের মালিক রুবেলের নেতৃত্বে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, শিবগঞ্জ ও মাসুদপুর ঠুঠাপাড়ার স্থানীয়রা মিলে প্রায় ২৫/৩০ জন লোক তদারকি কাজে ব্যস্ত থাকেন। এই ব্যাপারে বিট খাটালের মালিক রুবেলের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে, তিনি সাংবাদিক উপস্থিতি টের এলাকা থেকে চলে যায়। তার লোকজনের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, গরুর বিট বা এ সংক্রান্ত কোন কথা বলতে বা মোবাইল নম্বর দিতে নিষেধ আছে। তবে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আলাউদ্দিন আলাদ জানান, আমদানীকৃত গরুর আদায়কৃত টাকার জোড়া প্রতি ৭ হাজার টাকা যাচ্ছে, সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের পকেটে। স্থানীয় সূত্রগুলো আরও জানায়, বিট খাটাল এলাকায় মাদকাসক্তদের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ার অনুমান করা হচ্ছে। ভারত থেকে আমদানিকৃত গরুর সাথে সাথে বিভিন্ন ধরণের মাদকদ্রব্য আসছে। এই ব্যাপারে মাসুদপুর বিওপির সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ নির্দেশে শৃক্সখল বজায় ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কাজ করছি, অন্য কোন তথ্য দেয়া সম্ভব নয়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *