Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে প্রবেশ করেছে পেঁয়াজ

♦ স্টাফ রিপোর্টার

অবশেষে নানা জল্পনা-কল্পনার পর ৪দিন বন্ধ থাকার পর দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ নিয়ে ট্রাক প্রবেশ করেছে। শনিবার দুপুরে মোট ৮টি ট্রাক পেঁয়াজ নিয়ে প্রবেশ করেছে। প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে আরও ৩ শতাধিক ট্রাক।

অনুমতি না পাওয়ায় এসব ট্রাক এখনই বাংলাদেশে প্রবেশ করছেনা বলে জানিয়েছেন পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের ম্যানেজার মো. মাইনুল ইসলাম। জানা গেছে, ভারতের মহদিপুর বন্দরে এলসির টেন্ডারকৃত আটকে পড়া পেঁয়াজ ৫ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে আজ শনিবার সকাল ১১ টার পর থেকে ৮ ট্রাক পেঁয়াজ বাংলাদেশের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রবেশ করেছে। সোনামসজিদ শুল্ক ষ্টেশন সুত্র জানায়, আটকে পড়া সব পেঁয়াজ দ্রুতই প্রবেশ করবে বাংলাদেশে। প্রতি ট্রাকে ২৫ মেঃ টন করে ৮ ট্রাকে মোট ২০০ মেঃ টন পেঁয়াজ এসেছে শনিবার। আমদানীকৃত পেঁয়াজ বন্দরে দ্রুত ছাড় করে দেশের অভ্যন্তরীন বাজারে চলে গেলে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের নেতা আব্দুল আওয়াল জানান, পূর্বের এলসির পেঁয়াজ বাংলাদেশে দেয়ার জন্য শনিবার মহদিপুর বন্দরে আটকে পড়া ভারতীয় পেঁয়াজের অনেক ট্রাক সিরিয়াল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মহদিপুর রফতানীকারক সমিতির সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল সাহা। তিনি আরো জানান, বন্দরে পেঁয়াজের গাড়ী প্রবেশের খবরে স্থানীয় বাজারে কেজি প্রতি দর ১০ টাকা কমে এসেছে। বাজারে এখন ৫০-৫৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। ভারতের মহদিপুর বন্দরে এলসি করা ৭০-৮০ ট্রাক পেঁয়াজ আটকা পড়েছে। পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের ম্যানেজার মো. মাইনুল ইসলাম বলেন, গত ১৪ সেপ্টেম্বর মোট ৪৪ ট্রাক পেঁয়াজ বন্দরে প্রবেশ করার পর ভারত পেঁয়াজ রপ্তানী বন্ধ করে দেয়। শনিবার মোট ৮টি ট্রাক পেঁয়াজ নিয়ে বন্দরে প্রবেশ করেছে। আর কোন ট্রাক প্রবেশ করবে না। এই ৮ ট্রাক পেঁয়াজ আগের আমদানী করা। নতুন করে কোন আদেশ হয়নি পেঁয়াজ প্রবেশের।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *