Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে অস্ত্র ও মাদক মামলায়

দু’জনের ১০ বছর করে কারাদন্ড

♦ চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথক দুইটি অস্ত্র ও মাদক মামলায় দু’জনকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ অতিরিক্ত দায়রা জজ ও ষ্পেশাল ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক শওকত আলী আসামীদের অনুপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া রায়ে অস্ত্র আইনে দন্ডিতকে একই মামলার পৃথক ধারায় আরও ৭ বছর কারাদন্ড দেয়া হয়। অস্ত্র মামলায় আইনের দুই ধারার দুই সাজা একত্রে কার্যকর হবে বলে রায়ে উল্লেখ করেছেন বিচারক। এছাড়া মাদক আইনে দন্ডিতকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদন্ডেরও আদেশ দিয়েছেন বিচারক। অস্ত্র মামলায় দন্ডিত ব্যক্তি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার ছোট হাদিনগর গ্রামের কফিলউদ্দিনের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩৮) এবং মাদক মামলায় দন্ডিত ব্যক্তি সদর উপজেলার বাখেরআলী গ্রামের আমিনুল ইসলামের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩৫)। মামলার বিবরণ ও অতিরিক্ত পিপি আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, ২০১৬ সালের ৮ জানুয়ারী শিবগঞ্জের শ্যামপুর ইউনিয়নের কয়লারদিয়াড় এলাকায় পুলিশের অভিযানে ২টি বিদেশী পিস্তল, ৪টি ম্যাগজিন ও ১০ রাউন্ড গুলিসহ আটক হয় জিয়াউর। এঘটনায় ওইদিন শিবগঞ্জ থানার তৎকালীন এস.আই মাহফুজ আলম শিবগঞ্জ থানায় অস্ত্র আইনের ১৯ অ/১৯ (১) (ভ) ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও শিবগঞ্জ থানার তৎকালীন এস.আই হাফিজুর রহমান ২০১৬ সালের ৮ ফেব্রæয়ারী জিয়াউর রহমানকে একমাত্র আসামী করে আদালতে চার্যশীট দাখিল করেন। ৮ জনের সাক্ষ্য, প্রমাণ ও শুনানী শেষে বিচারক শওকত আলী মঙ্গলবার আসামীকে ১৯ অ ধারায় ১০ বছর ও ১৯ (১) (ভ) ধারায় ৭ বছর কারাদন্ড দেন। অপর মামলায়, ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযানে সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা বাখেরআলী বিট/খাটাল এলাকা থেকে ১৭৩৫ পিস ইয়াবাসহ আটক হয় আশরাফুল ইসলাম। এঘটনায় ওইদিন র‌্যাবের ডিএডি বেলাল হোসেন সদর থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সদর থানার তৎকালীন এস.আই মাহবুবুর রহমান ২০১৬ সালের ৩১ অক্টোবর আশরাফুলকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে চার্যশীট দাখিল করেন। ৭ জনের সাক্ষ্য, প্রমাণ ও শুনানী শেষে বিচারক শওকত আলী আসামীকে ১০ বছর কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দেন। জামিন নিয়ে উভয় আসামী পলাতক থাকায় তাদের অনুপস্থিতিতেই বিচার কাজ সম্পন্ন করেন আদালত।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *