Sharing is caring!

CIMG2614 CIMG2616চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ আম ও আমজাত পণ্য রপ্তানী বিয়য়ে সেমিনার হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় রপ্তানীর প্রশিক্ষন কর্মসুচীর আওতায় শনিবার সকালে দিনব্যাপী সেমিনারের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ জাহিদুল ইসলাম। আলোচনার মাধ্যমে আম রপ্তানী ও বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি মোঃ আব্দুল ওয়াহেদ। রপ্তানী ব্যুরোর উদ্যোগে ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সহযোগিতায় সিমিনারে বক্তব্য রাখেন ম্যাংগো প্রডিউসার মার্চেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও রপ্তানী ব্যুরোর গবেষণা কর্মকর্তা কাজী মোঃ সাইদুর রহমান, ম্যাংগো প্রডিউসার মার্চেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের জেলা শাখার সভাপতি মনিরুল ইসলাম, সিনিয়র সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধা মোঃ তসলিমউদ্দিনসহ অন্যরা। সেমিনারে রিসোর্স পারসন হিসেবে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা হর্টেক্স ফাউন্ডেশনের সিনিয়র ভ্যেলুচেইন এক্সপার্ট ড. মোঃ সালেহ আহমেদ। সেমিনারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আঞ্চলিক উদ্যানত্তত্ব গবেষণা কেন্দ্রের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, হর্টিকালচারের কর্মকর্তা, জেলার বিভিন্ন আম ব্যবসায়ীদের সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ জেলার আমচাষী ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে জেলা থেকে দেশে ও বিদেশে আম রপ্তানী ক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যা এবং সমাধানের বিষয়ে আলোচনা হয়। গত বছর আমের মৌসুমে আম বাজারজাত করণের জন্য প্রশাসনের সময় বেধে দেয়ার কারণে জেলার আম ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমে কোন ফরমালিন ব্যবহার না হলেও এক শ্রেণীর অসাধূ ব্যবসায়ীদের ষড়যন্ত্রের কারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমের সুনাম ক্ষুন্নের চেষ্টা করা হয়েছে। অন্য জেলার আমকে প্রাধান্য দেয়ার জন্য চেষ্টা করাও হয়েছে। কিন্তু বছরে চাহিদার দেশের প্রায় অর্ধেক আম উৎপাদন হয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। আবহাওয়া ও উর্বর জমিতে বিভিন্ন জাতের সুমিষ্ট আম উৎপাদন হয়। এবছর যেন আমচাষী ও ব্যবসায়ীরা কোনভাবেই ক্ষতিগ্রস্থ না হয়, সেজন্য জেলা প্রশাসন, আম ব্যবসায়ী ও আম ব্যবসায়ীদের সংগঠনগুলোকে নিয়ে সঠিকভাবে আম বাজারজাত করনের জন্য আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান সেমিনারে উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক। জেলার ব্যবসায়ীক উন্নয়নসহ সকল উন্নয়নের ক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, পৃথিবীর মধ্যে সু-স্বাদু ফল আম। এ আমকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বাজারজাত করার জন্য রপ্তানীর বিকল্প নেই। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সু-স্বাদু আম ইতোমধ্যেই রপ্তানী শুরু হয়েছে। অধিক হারে আম রপ্তানীর জন্য দুষণমুক্ত আম তৈরী, উন্নতমানের আকর্ষণীয় প্যাকেটিং ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। আম রপ্তানীর জন্য সরকার সবধরনের সহায়তা প্রদান করবে। আম নির্দিষ্ট সময়ে ও পরিপুর্ণভাবে পুষ্ট হলেই আমকে বাজারজাত করতে হবে। হাতে গোনা দুই একজন অসাধু ব্যবসায়ী থাকলে তাদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে। কোন ভাবেই ফরমালিন/কারবাইট বা ক্ষতিকারক কোন কীটনাষক ব্যবহার করে আমের গুনগতমান খারাপ হতে দেয়া হবেনা। তিনি আম ব্যবসায়ীদের সবধরনের সহায়তা করার আশ্বাস প্রদান করেন। চেম্বার সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ বলেন, প্রশাসনের কোন অনিয়মতাত্রিক নীতিমালা দিয়ে আম ব্যবসায়ীদের বিপদগামী করে অর্থনৈতিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করা হলে তা মানা হবেনা। আমকে স্বাভাবিক গতিতেই বাজারজাত করা হবে। কোন অসাধু ব্যবসায়ী কোন অসৎ উদ্দেশ্যে কেমিক্যাল ব্যবহার করলেই আম ব্যসায়ীরাই তার সমুচিৎ জবাব দিবেন। তিনি আম রপ্তানীর সরকারী সুযোগ গ্রহণ করে দেশে বিদেশে আম বাজারজাত করনের সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *