Sharing is caring!

Chapai Pic-1 CIMG3315চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় আম বাজারজাতকরণ বিষয়ে আলোচনা সভা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কক্ষে জেলা প্রশাসন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, আম গবেষণা কেন্দ্র, চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার, ভোলাহাট আম ফাউন্ডেশন, কানসাট আড়ৎদার সমিতি ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আগামী ২৫ মে থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বাজারজাত করনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। আমে কেমিক্যাল মেশালে কঠোর ব্যবস্থার হুশিয়ারী। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ জাহিদুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন এন.এস.আই’র উপ-পরিচালক মোঃ শামসুজ্জোহা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সাজদার রহমান, আম গবেষণা কেন্দ্রের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শরফ উদ্দিন ও ড. জমিরউদ্দিন, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান, চেম্বারের সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান হানু, ভোলাহাট আম ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক চুটুসহ জেলার বিভিন্নস্থানের আম ব্যবসায়ীরা। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মির্জা শাকিলা দিল হাছিন, হর্টিকালচারের উপ-পরিচালক, অধ্যক্ষ ও চেয়ারম্যান এজাবুল হক বুলি, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের শষ্য গবেষণা কর্মকর্তা সামস-ই-তাবরিজ, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. এম আজিজুর রহমান, শিবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাসহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাগণ আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন। সভায় আগামী ২৫ মে থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বাজারজাত করনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় এবং এর কোন ব্যত্যয় হলে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুশিয়ারী দেয়া হয়। আমে যেন কোন প্রকার কেমিক্যাল ব্যবহার করা না হয়, সে ব্যাপারেও ব্যবসায়ীদের কঠোর আইনী ব্যবস্থার বিষয়েও জানানো হয়। আমে ক্ষতিকর কোন কেমিক্যাল দেয়া হলে, ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ফরমালিন বা কেমিক্যাল মেশানোর বিষয়টি পরীক্ষা যন্ত্রের মাধ্যমে পরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতেও নির্দেশ দেয়া হয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে। কোন পরিবহনে সময়ের পূর্বে আম বাজারজাতকরণের জন্য পরিবহন করলেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সভায় জেলা প্রশাসন, কৃষি বিভাগ, আম গবেষণা কেন্দ্র, চেম্বার, এনএসআই ও পুলিশ সমন্য়ে কমিটি গঠন করে নিয়মিত তদারকি করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আগামী ২ মাস এই কমিটি এবং নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে কৃষি বিভাগের সমš^য়ে নিয়মিত তদারকি ও অভিযান চালানোর বিষয়েও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অন্যদিকে, কোন ব্যবসায়ী যেন অযথা হয়রানীর শিকার না হয়, সেদিকেও সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্যও সিদ্ধান্ত হয় সভায়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *