Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের পদ্মানদীর পাড়ে গত বছর ১৭ ডিসেম্বর উদ্ধার হওয়া ভারতীয় নাগরিক মানিকুল শেখের (৪০) মরদেহ দীর্ঘ ৮০দিন পর সোমবার ভারতীয় কর্র্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। দুপুর ১২টায় সোনামসজিদ ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট পথে মরদেহটি গ্রহন করেন ভারতের মোহদীপুর ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট কর্মকর্তা শুভাশীষ মন্ডল, বিএসএফ ইন্সপেক্টর টি. ট্যাঙ্গেল ও মৃতের ভাই আইনাল হক। এতদিন মরদেহটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গের হিমঘরে রাখা ছিল। মানিকুল শেখ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহ জেলার বৈষœবপুর থানার কাশিম শেখের ছেলে। প্রথমে মরদেহটি অজ্ঞাত হিসেবে উদ্ধার করে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানায় সে সময় একটি মামলা হয়। মৃতের পরিচয় নিশ্চিত হবার পর মামলাটি ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট (সিআইডি) তদন্ত শুরু করে ও কুটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে মরদেহটি হস্তান্তরের ব্যবস্থা করে। এ প্রেক্ষিতে সোমবার সকাল ১০টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আয়েশা জুলেখা বাংলাদেশে ভারতীয় দুতাবাসের প্রটোকল ও ওয়েলফেয়ার কর্মকর্তা অরবিন্দ কুমার শ্রীবাস্তব এবং কনসুলার সহকারী আশরাফ হোসেনের নিকট মরদেহ হস্তান্তর করেন। এসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন কাজী শামীম হোসেন, সিআইডি পরিদর্শক আনিসুর রহমান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি উপ-পরিদর্শক আব্দুর রউফ, শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ রমজান আলী, ওসি (তদন্ত) সারোয়ার রহমান, ৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সোনামসজিদ কোম্পানী কমান্ডার আবু তাহের ও সোনামসজিদ ইমিগ্রেশনের এসআই আতাউর রহমান উপস্থিত ছিলেন। দুতাবাস কর্মকর্তারা মরদেহটি গ্রহন করে সোনামসজিদ যান এবং বাংলাদেশী ইমিগ্রেশন, পুলিশ ও বিজিবির উপস্থিতিতে মরদেহ ভারতীয় কর্র্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করেন। সিআইডি পরিদর্শক আনিসুর রহমান ভারতীয় নাগরিক মানিকুল শেখের মরদেহ হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আয়েশা জুলেখা বলেন, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে মানিকুল শেখ পানিতে ডুবে মারা গেছে বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *