Sharing is caring!


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ ভাব গাম্ভির্যের মধ্য দিয়ে ও বিপুল আনন্দ উদ্দীপনা আর চমৎকার পরিবেশে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হয়েছে। গত সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের নিমতলা-ফকিরপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহে জেলায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ইমামতি করেন শহর জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাহবুবুর রহমান। ঈদের নামাজ আদায় করেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হাসান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব মইনুদ্দীন মন্ডল, পৌর মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফতেখার উদ্দিন শামীমসহ পদস্থ সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তাসহ হাজারো ধর্মপ্রাণ মুসল্লী। নামাজের পূর্বে জেলা প্রশাসক মাহদুদুল হাসান ও ঈদগাহ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় দোয়া করা হয়। জেলার সংসদ সদস্যগন ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ নিজ নিজ এলাকায় ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করেন। উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাগন জেলা পুলিশ লাইন্সে ঈদ জামাতে অংশ নেন। ঈদ উপলক্ষে জেলা সদর সহ শহরগুলি রঙ্গিন পতাকা, বেলুন, ফেস্টুন দিয়ে সাজানো হয়। পথে পথে নির্মাণ করা হয় তোরণ। গুরুত্তপূর্ন সরকারী বেসরকারী ভবন ও স্থাপনা আলোকসজ্জা করা হয়। জেলার সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় মহারাজপুর ঈদগাহে। সেখানে ইমামতি করেন কোট জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মোঃ আবুল হোসেন। মহারাজপুর ঈদগাহে ঈদ-উল ফিতর এর নামাজ আদায় করেন ‘সাপ্তাহিক সোনামসজিদে’র সম্পাদক মোহাঃ জোনাব আলী, ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু। মহারাজপুর ঈদগাহে একসাথে প্রায় ১২ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান ঈদের নামাজ আদায় করেন। ঈদের নামাজের পর মানুষ ছুটে যায় জেলার বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রগুলিতে। নতুন পোষাক পরা শিশুদের খুশী ছিল সবচায়তে বেশী। ঈদের দিন থেকে শুরু হয়েছে সদর উপজেলার মহারাজপুরে ঈদ আনন্দ মেলা। ঈদ উপলক্ষে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত দেখা যায়। আবহাওয়া ভাল থাকায় জেলাব্যাপী ঈদ উদযাপিত হয় নির্বিঘেœ।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *