Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে স্থানীয়

পণ্যের প্রভাব-সমস্যা ও সম্ভাবনা শীর্ষক

সেমিনার

♦ স্টাফ রিপোর্টার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে স্থানীয় পণ্যের প্রভাব-সমস্যা ও সম্ভাবনা শীর্ষক সেমিনার হয়েছে। রবিবার বিকেলে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক। সেমিনারে বাংলাদেশের প্রেক্ষপটে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের গুরুত্ব, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে স্থানীয় পণ্যের প্রভাব ও সম্ভাবনা, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বিকাশে প্রতিবন্ধকতা, এম.এম.ই খাতের উন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপ সমূহ, এস.এম.ই খাতে ঋণ বিতরণ, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও। সেমিনারে বক্তব্য রাখেন, প্রখ্যাত শিল্পী, মুক্তিযোদ্ধা ও নারী উদ্যোক্তা প্রফেসর ইফফাত আরা নার্গিস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক মো. শহিদুল ইসলাম, বিসিক চাঁপাইনবাবগঞ্জের সহকারী মহাপরিচালক মো. শফিকুল আলম, উদ্যোক্তা আঞ্জুমান আরা লিপি, এস.এম.ই’র গণসংযোগ কর্মকর্তা আরিফুল ইসলামসহ অন্যরা। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খাদিজা বেগমের সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক চিত্রলেখা নাজনীন, ‘দৈনিক চাঁপাই দপর্ণ’র সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জুু, জাতীয় মহিলা সংস্থার জেলা শাখার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ্যাড. ইয়াসমিন সুলতানা রুমা, বিজিবি’র প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক আলহাজ্ব এ্যাড. লুৎফর রহমার ফিরোজ, নারী উদ্যোক্তা আফসানা খাতুনসহ এস.এম.ই মেলায় স্টলদাতারা। সেমিনারে বক্তারা বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্য প্রচার ও বাজারজাতকরণের লক্ষ্যে এস.এম.ই মেলার আয়োজন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক), জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি (নাসিব), চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সহযেগিতায় ও এস.এম.ই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৭দিনব্যাপী ‘আঞ্চলিক এস.এম.ই পণ্য মেলা’। কিন্তু চাঁপাইনবাবগঞ্জের পণ্য বাজারজাতকরণে  পারিবারিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিবন্ধকতার কারণে আরো ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। বক্তারা আরো বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নকশি কাঁথা, কাঁসা-পিতল, শিল্ক, ঐতিহ্যবাহি পণ্য হলেও, এসব পণ্য কোনো ব্র্যান্ডিং না হওয়ায় মানসম্মত সম্মান বা মূল্য কোনটাই পাচ্ছে না। ফলে এসব ঐহিত্যবাহি পণ্যের সঠিক মূল্য পাচ্ছে না কর্মী ও উদ্যোক্তারা। বক্তারা এসব পণ্যের ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে সঠিক মূল্যায়নের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান। উদ্যোক্তাদের ব্যাংক ঋণের ক্ষেত্রের বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কথাও তুলে ধরে বক্তারা বলেন, ব্যাংকে সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তার নাম পরিচয় না থাকায় বেশি সমস্যায় পড়তে হয়। সেমিনারের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উৎপাদিত পণ্যের সঠিকভাবে বাজারজাতকরণ, প্রচার ও ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে সঠিক মূল্যায়নের ব্যবস্থা করে জেলার উদ্যোক্তাদের সকল ধরণের সহযোগিতার করা হবে। তিনি উদ্যোক্তা ও প্রশাসনের মধ্যে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানের আশ্বাস দেন। উল্লেখ্য, এই প্রথম ৭দিনব্যাপী ‘আঞ্চলিক এস.এম.ই পণ্য মেলা’য় কৃষি যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকারী শিল্প, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য শিল্প, পাট ও পাটজাত শিল্প, হস্ত ও কারুশিল্পসহ বিভিন্ন দেশী-বিদেশী পণ্যের প্রদর্শণী ৫৩টি স্টল রয়েছে। এছাড়াও মেলায় দেশীয় বিভিন্ন খেলাধুলা ও বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *