Sharing is caring!

DSC05532_1চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদ্য যোগদানকৃত পুলিশ সুপার টি.এম মোজাহিদুল ইসলাম জেলার গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে মতমিনিময় করেছেন। সোমবার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই মতিবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময়কালে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাকে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকমুক্ত জেলা হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব আলম খান, সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কালাম সাহিদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এমরান ফারুক মাসুম, সাধারণ সম্পাদক জোনাব আলী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম মোস্তফা মন্টু, সাধারণ সম্পাদক কামালউদ্দিন, এনটিভির প্রতিনিধি শহীদুল হুদা অলক, প্রথম আলোর নিজ¯^ প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন দিলু, চ্যানেল আই’র জেলা প্রতিনিধি আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু, সাংবাদিক রফিকুল আলম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাহারুল ইসলামসহ জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াকর্মীগন। তিনি ২৪ জুলাই রবিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেছেন। লালমনিরহাট পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালনে শেষে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করার পর এটিই প্রথম গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময়। সভায় তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাকে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদমুক্ত, মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহমুক্ত জেলা হিসেবে গড়ে তুলতে জেলার সকল মিডিয়াকর্মীদের সহাযোগিতা কামনা করেন। তিনি গাজিপুর জেলায় জন্মগহণ করেন। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে ২০তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তির্ণ হয়ে এএসপি হিসেবে পুলিশ বিভাগে যোগদান করেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জে যোগদানের আগে তিনি ঝিনাইদহ, চাঁদপুর, বরিশালসহ বিভিন্ন পদে বিভিন্ন জেলায় দায়িত্ব পালন করেন। তিনি র‌্যাব এর ৩, ৫ ও ৬ কোম্পানীতেও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন এবং শান্তিরক্ষা মিশনেও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, বিচ্যুত যুবকেরা জঙ্গী সম্পৃক্ত হয়ে দেশে সন্ত্রাস সৃষ্টি করছে। তিনি সমাজের সমস্যাগুলো নিরসনে কাজ করতে চান। কোন অপরাধ সংঘটিত হওয়ার পর তথ্য দিয়ে সহায়তা এবং নিজের সমালোচনার জন্যও বলেন গণমাধ্যমকর্মীদের। সমালোচনা হলেই তিনি নিজেকে সুধরাতে পারবেন বেশী। তিনি আরও বলেন, গণমাধ্যম একটি বড় শক্তি। সমালোচনার পাশাপাশি পুলিশের অর্জনগুলোও তুলে ধরার আহবান জানান। অর্জনগুলো তুলে ধরলে পুলিশ কর্মকর্তারা অপরাধ দমনে আরও উৎসাহ পাবে। তিনি মাদকের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রদান করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশকে মাদক নির্মুলে সহায়তারও আহবান জানান। তিনি জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরজমিনে গিয়ে এলাকার সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন। কোন চাপের কাছে নতি ¯^ীকার করে, কোন অপরাধীকে ছাড় না দেয়ার কথাও ব্যক্ত করেন। বিশেষ করে মাদকের সাথে কোন আপোষ নেই। মোটরসাইকেল রেজিষ্ট্রেশনসহ বিভিন্ন যানবাহনে অভিযানের মাধ্যমে কোটি টাকা আদায় করে সরকারের রাজ¯^ আদায়ে ভূমিকা রেখেছেন আগে দায়িত্ব পালন করা জেলায়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাতেও সরকারের রাজ¯^ আদায়ে একই ভূমিকা রাখা হবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি। তিনি বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গীবাদ নির্মুলে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের অবক্ষয় থেকে রক্ষায় কোন ছাত্র যেন ছাত্র পরিচয়ে সন্ধ্যা এবং রাত ৮টার পর বাড়ি বাহিরে অবস্থান না করে সেজন্য অভিভাবক ও ছাত্রদের প্রতি অনুরোধ জানান। আইন সকলের জন্যই সমান, তাই আইনগত সহযোগিতা সমভাবেই প্রয়োগ করা হবে বলেও জানান তিনি। তিনি মিডিয়া বান্ধব হিসেবে এর আগেও দায়িত্ব পালন করেছেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাতেও মিডিয়া বান্ধব হিসেবে কাজ করতে চান। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাকে মাদক ও জঙ্গীবাদমুক্ত এবং একটি সুন্দর জেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য গণমাধ্যমকর্মীদের সকল সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *