Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার কৌচলাপাড়া মৌজার সাঁওতালপাড়ার একটি জমির বাউন্ডারী ক্ষতিগ্রস্থ ও জমির বর্গাদারকে মারধরের ঘটনায় ৩ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার সকালে মামলার ধার্যদিনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের আমলী ‘ক’ অঞ্চলের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জুয়েল অধিকারী আসামীদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিক সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এটিএম মেসবাউদ দ্দৌলা। কারাগারে পাঠানো আসামীরা হচ্ছে, আতাহার গ্রামের আবুল কালাম, একই গ্রামের মোঃ রাসেল ও শহরের হুজরাপুরের আব্দুল খালেক। বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মোঃ আপেলের করা এই মামলার বিবরণীতে জানা যায়, সদর উপজেলার উক্ত মৌজার সি.এস-১৯৮, এস.এ-২৫৮, আর এস-৩২২, প্রস্তাবিত খতিয়ান নম্বর ৭৬৪, সাবেক দাগ নম্বর-১০৫৫ ও ১২৪৭, হাল দাগ নম্বর-১২২১ ও ১৪৯২, জমির পরিমান প্রায় ১ একর। ক্রয়সুত্রে জমির মালিক হওয়ার পর দীর্ঘদিন থেকেই ভোগদখল করে আসছেন অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এটিএম মেসবাউদ দ্দৌলা। উক্ত জমি নিয়ে পূর্বে নবাবগঞ্জ সদর সহকারী জজ আদালতে হওয়া একটি মামলায় স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা পাইয়া ভোগদখল করছেন অদ্যবধি তিনি। কিন্তু গত ২৩ জানুয়ারী ২০১৭, উক্ত জমির মালিকের খামারবাড়ীতে সকালে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা দলবদ্ধ হয়ে গিয়ে হামলা চালায়। এসময় খামারবাড়ীর ৩০টি সিমেন্টের তৈরী পিলার, ৫ বান্ডিল কাঁটা তার, ২ বান্ডিল টিন, ৫ হাজার ইট, ভাংচুর করে এবং লুটপাট করে নিয়ে যায়, যার আনুমানিক মোট মূল্য ১ লক্ষ ৫ হাজার টাকা। একাজে বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা মামলার বাদি মোঃ আপেলকে বেধড়ক মারধর করে এবং জীবননাশের হুমকী দেয়। এঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করে আপেল। মামলা নম্বর ৭৫-সি/১৭। মোট ১১ জনকে আসামী করে মামলা করা হয়। এই মামলায় সোমবার ধার্য দিনে হাজিরা দিতে আসামীরা এলে মামলার ৩ জন আসামীকে জামিন নামুঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক। ৭৫-সি/১৭ মামলায় ৩ আসামীকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালত সুত্র। এ বিষয়ে জমির মালিক অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ এটিএম মেসবাউদ দ্দৌলা জানান, দীর্ঘদিন আগে জমি কিনে অদ্যবধি ভোগদখল করে আসছি। এলাকার সন্ত্রাসীরা আমার জমির উপর থাকা বাউন্ডারীসহ বিভিন্ন জিনিষের ক্ষতি ও লুটপাট করে এবং আমার জমির বর্গাদার আপেলকে মারধর করে। এঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলায় সোমবার আসামীরা হাজিরা দিতে এলে মামলার আসামী কালাম, রাসেল ও খালেককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালতের বিচারক।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *