Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জাতীয় মহিলা

সংস্থার প্রশিক্ষনার্থীদের বিদায় ও বরণ

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

জাতীয় মহিলা সংস্থা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রকল্পের প্রশিক্ষণার্থীদের বিদায় ও নবীন বরণ অনুষ্ঠান হয়েছে। বুধবার বিকেলে জেলা শহরের ফুড অফিস মোড়স্থ জেলা কার্যালয়ে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, জাতীয় মহিলা সংস্থা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অ্যাড. ইয়াসমিন সুলতানা রুমা। অনুষ্ঠানে ৬ মাস মেয়াদী কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কোর্ষের জানুয়ারী-জুন ব্যাচের ৫০ জনকে বিদায় এবং জুলাই-ডিসেম্বর ব্যাচের নতুন ২৫ জন প্রশিক্ষনার্থীকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। জেলা ভিক্তিক মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আয়োজনে অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সহকারী প্রোগ্রামার তাসরিন সুলতানা। এসময় বক্তব্য রাখেন, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষক মোসা. রাহনাজ বন্যা, মহিলা সংস্থার মাঠ সমš^য়কারী মো. কবির হোসেন, বিদায়ী ছাত্রী সাদেরাতুন নেসা, সালমা খাতুন, আম্বিয়া খাতুন, আলিজা খাতুন, নতুন ব্যাচের প্রশিক্ষনার্থী সবনম মোস্তারী। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় মহিলা সংস্থা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের নকশী কাঁথা ও কাটিং প্রশিক্ষণ কোর্ষের ট্রেড প্রশিক্ষক সিনুরা বেগম, সহকারী ট্রেড প্রশিক্ষক মুনিরা ইসলাম, দর্জি বিজ্ঞান কোর্সের ট্রেড প্রশিক্ষক রেহেনা ইয়াসমিনসহ নবীন ও বিদায়ী প্রশিক্ষনার্থীরা। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় মহিলা সংস্থা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অ্যাড. ইয়াসমিন সুলতানা রুমা বলেন, বর্তমান সরকার নারীদের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিকভাব কাজ করে যাচ্ছে। আপনারা জানেন, দেশের কোথাও মাত্র এক হাজার টাকায় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ নেয়া যায় না, অন্য কোথাও এত অল্প খরছে গ্রাফিক্স ডিজাইন ও আউটসোসিং এর প্রশিক্ষণ নেই। তাই তথ্য-প্রযুক্তিতে নারীদেরকেও এগিয়ে নিতে সরকার সারাদেশের ৬৪টি জেলায় মহিলা সংস্থার জেলা ভিক্তিক মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে। তিনি আরো জানান, বর্তমানে বিদায়ী ৫০ প্রশিক্ষনার্থীর মধ্যে সকালে ২৫ ও বিকেলে ২৫ জন মোলিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করেছে। আগামী জুলাই-ডিসেম্বর ব্যাচে ২৫ জন মোলিক প্রশিক্ষণ এবং নতুনভাবে চালু হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন ও আউটসোসিং প্রশিক্ষণ কোর্স, যেখানে ২৫ জন প্রশিক্ষনার্থী প্রশিক্ষণ নিবে। অ্যাড. আলহাজ্ব ইয়াসমিন সুলতানা রুমা আরও বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নারীদের অংশগ্রহণে এসব প্রশিক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এরই ধারাবাহিকতায় এখান থেকেই ৬ জন নারী প্রশিক্ষণ নিয়ে তথ্য আপা প্রকল্পের বিভিন্ন স্তরে ইতোমধ্যে চাকুরি পেয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *