Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ডেঙ্গু পরিস্থিতি ও বিশেষ

পরিচ্ছন্নতা অভিযান নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

♦ স্টাফ রিপোর্টার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও ৩ দিনের বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জেলা প্রশাসক এ জেড এম নুরুল হক। সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, এই মূহুর্তে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসাপাতালে ২৬ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি রয়েছেন। এখন পর্যন্ত অনেক রোগীই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন এবং আজ (সোমবার) ৬ জন নতুনভাবে ভর্তি হয়েছেন। এখন পর্যন্ত ভর্তি হওয়া বেশিরভাগ রোগীই ঢাকা ফেরত হলেও তাদের মধ্যে এই জেলার ৫ জনকে সনাক্ত করা হয়েছে। যাদের কেউ ঢাকা ফেরত নয় এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জে বসবাস করা অবস্থায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে। জেলা প্রশাসক জানান, ডেঙ্গুতে আক্রান্তদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে গত শনিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসাপাতালের নতুন ভবনের ৩য় তলায় ডেঙ্গু কর্ণার খোলা হয়েছে। সদর হাসপাতালসহ বেসরকারি বিভিন্ন ক্লিনিকে ডেঙ্গু পরীক্ষা-নিরীক্ষার সকল খরচ জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে বহন করা হবে এবং ইতোমধ্যে যারা খরচ করছেন, তাদের খরচকৃত অর্থ ফেরত দেয়া হবে। এমনকি রোগীদের সার্বিক সেবা নিশ্চিত করতে ও হয়রানী রোধে রোভার স্কাউটসহ স্বেচ্ছাসেবী বিভিন্ন সংগঠন কাজ করছে। তিনি আরো জানান, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযানের মাধ্যমে ৩ দিনের মধ্যে জেলাকে শতভাগ পরিচ্ছন্ন হিসেবে গড়ে তুলেতে কাজ করছে জেলা প্রশাসন। আজ সকাল থেকে (সোমবার) বিশেষ এই অভিযানে জেলার সকল পুকুর, ডোবা, নালা, নর্দমা, অপরিস্কার স্থান পরিচ্ছন্ন করে এডিস মশার বংশবিস্তার রোধ করা হচ্ছে। এসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হুদা অলক বলেন, দেশবাসী বর্তমানে ডেঙ্গুতে আক্রান্তের চাইতে আতঙ্কগ্রস্থ হয়েছে বেশি। শুধুমাত্র নিদিষ্ট কর্তৃপক্ষ, প্রধানমন্ত্রী, মেয়রকেই পরিচ্ছনতার দায়িত্ব দিলে চলবে না। আমাদের বাড়ির আশপাশ পরিস্কার করা ও নিজেদের ফেলে দেয়া আর্বজনা নিজেদেরকেই পরিচ্ছন্ন করতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন আরো বেশি জনসচেতনতা। এমনকি নিজ বাড়ির আশেপাশে ময়লা-আর্বজনা ফেলে রাখার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করতেও জেলা প্রশাসককে আহব্বান জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, এডিস মশার বংশবিস্তার রোধ করতে জেলা শহরের খালঘাট ভাগার, আজাইপুর বিল, পোলাডাঙ্গা পুকুর এবং অটোরাইস মিলের এলাকাগুলোতে অভিযান পরিচালনা করতে হবে। দেশের এই সংকটময় মূহুর্তে মানবিক দিক বিবেচনায় সরকারি কোষাগার থেতে বেতন-ভাতার দাবিতে আন্দোলনরত পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে ফেরার অনুরোধ জানাতে জেলা প্রশাসনকে আহব্বান জানান তিনি। ঈদের সময়ে ডেঙ্গু রোগীদের বাড়তি চাপ মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকতে এবং অতিরিক্ত মেডিকেল টিম গঠনের আহব্বান জানান বক্তারা। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ.কে.এম. তাজকির-উজ-জামান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব মাহবুবুল আলম, সাপ্তাহিক সোনামসজিদ পত্রিকার সম্পাদক মোহাঃ জোনাব আলীসহ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ ও জেলায় কর্মরত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *