Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএনপি প্রার্থী হারুনের

বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হলো জেলা

বিএনপির সভাপতিসহ কর্মীদের

♦ চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী হারুনুর রশিদের বাড়ি থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম টিপুসহ নেতাকর্মীদের বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় জেলা বিএনপিসহ নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তবে, এঘটনা অস্বীকার করেছেন সাবেক এমপি হারুনুর রশিদ। জানা গেছে, জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে প্রতীক বরাদ্দের পর বিএনপি প্রার্থী হারুনুর রশিদ, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের প্রার্থী অধ্যাপক শাহজাহান মিয়া এবং জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের প্রার্থী আলহাজ্ব মো. আমিনুল ইসলাম এবং জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম টিপুসহ যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল এর নেতাকর্মীরা সাবেক এমপি হারুনের বাড়িতে যান। পরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের প্রার্থী অধ্যাপক শাহজাহান মিয়া এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের প্রার্থী আলহাজ্ব মো. আমিনুল ইসলামকে বাড়িতে রেখে জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম টিপুসহ সকল নেতাকর্মীদের প্রার্থী হারুনের নির্দেশে তাঁর বাড়ি থেকে বের করে দেয়। শেষ পর্যন্ত উপায়ান্তর না দেখে জেলা সভাপতিসহ সকল নেতাকর্মী চলে যায়। এব্যাপারে অপমানিত হওয়া জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. রফিকুল ইসলাম টিপু বলেন, আমরা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৩টি সংসদীয় আসনের বিএনপির প্রার্থীদের নিয়ে সাবেক এমপি হারুনের বাড়িতে যায়। সেখানে হারুন এমপির নির্দেশে আমিসহ সকল নেতাকর্মীদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তাৎক্ষনিক সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি তসিকুল ইসলাম তসিকে ভিতরে ডেকে নিলেও আমাদেরকে বাড়ির ভিরতে ঢুকতে দেয়া হয়নি। শেষ পর্যন্ত আমরা এভাবে অপমানিত হওয়ার পর সেখান থেকে চলে আসি। এক পর্যায়ে নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। অবশেষে সকলে শান্তিপূর্ণভাবে সেখান থেকে চলে আসি। এব্যাপারে কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের বিএনপির প্রার্থী হারুনুর রশিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা জেলার বিএনপির ৩টি আসনের প্রার্থী গোপন নির্বাচনী আলোচনা করার জন্য বসেছিলাম। সে জন্য অন্য কোনো নেতাকর্মীকে ঘরে রাখা হয়নি। এছাড়া নেতাকর্মীরা সকলে চা-মিষ্টি খেয়ে বাড়ি থেকে এসেছে। কিন্তু কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *