Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহান বিজয় দিবস

উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ শেষে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর অর্জন হয় চূড়ান্ত বিজয়। এবছর মহান বিজয় দিবস বর্ণাঢ্যভাবে পালনের লক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। প্রস্তুতি সভায় ১০ ডিসেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন বিজয়ের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এই উপলক্ষে ১০ ডিসেম্বর সোমবার সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ কালেক্টরেট ভবন এলাকা থেকে সর্বস্থরের জনগণের অংশ গ্রহণে বিজয় র‌্যালি হয়। লাল সবুজে ঘেরা জাতীয় পতাকা নিয়ে সর্বস্তরের মানুষ র‌্যালীতে অংশ নেয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে সকলে শ্রদ্ধা জানিয়ে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে র‌্যালীর সূচনা করা হয়। পরে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষীণ করা হয়। র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসক এ.জেড.এম নূরুল হক। র‌্যালীতে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার টি.এম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ড. চিত্রলেখা নাজনীন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, সিভিল সার্জন ডা. খাইরুল আতাতুর্ক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব আলম খান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার   মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোখলেসুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আলমগীর হোসেনসহ সরকারি বে-সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ। উল্লেখ্য, নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজে ১০ থেকে ১৬ ডিসেম্বর সপ্তাহব্যাপী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক দেয়ালিকা প্রদর্শনী হবে। ১৪ থেকে ১৬ ডিসেম্বর প্রতিদিন সন্ধায় জেলার বিভিন্ন জনবহুল এলাকায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র এবং প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী হবে। এ ছাড়াও ১৪ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৯ টায় গ্রীণ ভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিশু একাডেমীর শিশু বিকাশ ও প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা এবং বিভিন্ন খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হবে। ১৬ ডিসেম্বর সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিনের সূচনা করা হবে। সকল সরকারি/বেসরকারি/স্বায়ত্ব শাসিত/ব্যক্তিমালিকানাধীন ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। এরপরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চত্ত¡ওে অবস্থিত শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিফলকে পুস্পস্তবক অর্পণ। সকাল পৌনে ৭ টায় হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের পূর্ব-দক্ষিণ কোণে অবস্থিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ। সকাল সাড়ে ৮ টায় পুরাতন স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক কর্তৃক জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সরকারি বাহিনী/দপ্তর, বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠণ কর্তৃক প্রদত্ত অভিবাদন গ্রহণ ও কুচকাওয়াজ পরিদর্শনসহ নানা আয়োজন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *