Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ‘রেডিও মাহনন্দা’র উদ্যোগে

কমিউনিটি সংলাপ : সচেতনতা ও

দক্ষতার উপর গুরুত্বারোপ

♦ স্টাফ রিপোর্টার

কমিউনিটি রেডিও ‘রেডিও মাহনন্দা’র উদ্যোগে তথ্যে প্রবেশাধিকারের মাধ্যমে গ্রামীণ জনগোষ্ঠির জীবন ও জীবিকা উন্নয়ন, ক্ষমতায়ন প্রক্রিয়া তরান্বিত করা এবং সরকারী-বেসরকারী সংস্থা’র কর্মকান্ডে সমন্বয় বৃদ্ধির লক্ষে কমিউনিটি সংলাপ হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। সোমবার বিকেলে শহরের আধুনিকমানের লাক্সারিয়াস বিজনেস বুটিক হোটেলের এর পার্টি সেন্টারে সংলাপে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য কমিশনের প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক এ.জেড.এম নূরুল হক, নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর সুলতানা রাজিয়া, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন। সংলাপে সভাপতিত্ব করেন বেসরকারী সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি’র সভাপতি ও শাহনেয়ামতুল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষ মো. আনোয়ারুল ইসলাম। বাংলাদেশ এনজিওস নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি) এবং ফ্রিডরিখ ন্যাউম্যান ফাউন্ডেশন (এফএনএফ বাংলাদেশ)’র যৌথ সহায়তায় সংলাপে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রেডিও মহানন্দার স্টেশন ম্যানেজার আলেয়া ফেরদৌস। বক্তব্য রাখেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব মাহবুবুল আলম, জাতীয় মহিলা সংস্থার জেলা শাখার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ্যাড. ইয়াসমীন সুলতানা রুমা, জেলা তথ্য অফিসার মো. ওয়াহিদুজ্জামান, নবাবগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মনোয়ারা খাতুন, শিবগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসা. সায়েমা খাতুন। এছাড়াও তথ্য অধিকার বিষয়ে প্রশ্ন করেন সাপ্তাহিক সোনামসজিদের সম্পাদক মোহাঃ জোনাব আলী, জেলা নাটাবের সভাপতি মনিম ইদ দৌলা চৌধুরী, প্রবীন সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা মো. তসলিম উদ্দিন, সদর উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক কনক রঞ্জন দাস, টিআইবি’র চাঁপাইনবাবগঞ্জ এরিয়া ম্যানেজার মো. শফিকুল ইসলামসহ অন্যরা। উপস্থিত ছিলেন ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু, স্বাধীন সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক তুফান, শাহনেয়ামতুল্লাহ কলেজের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক নওসাবাহ নওরীন নেহা, তথ্য কমিশনারের একান্ত সহকারী (উপ-সচিব) গোলাম কবির, বিএনএনআরসি এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ.এইচ.এম বজলুর রহমান, রেডিও মহানন্দার সহকারী স্টেশন ম্যানেজার মুহাম্মদ আব্দুল বারী, সিনিয়র কর্মকর্তা তাকিউর রহমান, জেলা ক্রীড়া অফিসার আকতারুজ্জামান রেজা তালুকদার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল কাদের, জেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আনন্দ কুমার অধিকারী, ইসলামিক ফাউন্ডেশন চাঁপাইনবাবগঞ্জ কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আবুল কালাম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জিয়াউর রহমান, ড. ইমরান আলী, সমাজ সেবা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক সিরাজুম মুনির আফতাবী, লুনা ট্রেডার্সের মালিক ও রেডিও মহানন্দা পরিচালনা পরিষদের সদস্য মো. রাইহানুল ইসলাম লুনা, মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যক্ষ এজাবুল হক বুলিসহ শিক্ষক, গণমাধ্যমকর্মী, বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ, সাংস্কৃতিক কর্মী, রেডিও মহানন্দার বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ অন্যরা। সংলাপে তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ এর বাস্তবায়ন বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, স্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহকে স্ব-প্রণোদিতভাবে তথ্য প্রদানে উৎসাহিত করা এবং তথ্য প্রদানকারী এবং তথ্য গ্রহণকারী উভয় পক্ষের মধ্যে যোগাযোগের সৃুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যেই এই সংলাপের আয়োজন বলে জানিয়েছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ। তথ্য কমিশনার সকলকে তথ্য অধিকার আইন জেনে এবং বুঝে তথ্য লেনদেন করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি সকলকে তথ্য অধিকার আইন বিষয়ে সচেতন হওয়ারও আহবান জানান। তিনি জনগণ ও বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তাদের মাঝে সচেতনতা ও দক্ষতা সৃষ্টি করতে হবে। সংলাপে প্রধান অতিথি বলেন, তথ্য অধিকার আইন জনগণের কাছে তথ্য দেয়ার বিষয়টির অধিকার দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, তথ্য অধিকার আইন গণ্যমাধ্যমকর্মীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক। নিরপেক্ষ সংবাদ প্রকাশের জন্য তথ্য অধিকার আইন গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য একটি রক্ষা কবজ। তিনি বলেন, সকল অফিসে তথ্য প্রদান কর্মকর্তা নিয়োগ করতে হবে। যদি কোনো কর্মকর্তা তথ্য না দেন অথবা ভুল তথ্য দেন তাহলে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা রয়েছে। ভুল তথ্য প্রদান করলে ওই কর্মকর্তাকে জরিমানা করা যাবে ৫ হাজার টাকা এবং বিভাগীয় মামলাও রুজু করার বিধান রয়েছে এবং তথ্য প্রদানে হয়রানী করলে উপযুক্ত পরিমাণে জরিমানাও করা যাবে। তিনি বলেন, বিতর্কিত বা ক্ষতিকর তথ্য ছাড়া সকল ক্ষেত্রে তথ্য অধিকার আইন অগ্রাধিকার পাবে। তবে, তিনি এও বলেন, কেউ কোনো কর্মকর্তাকে অহেতুক বা বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য হয়রানী করলে সেটাও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। তিনি বলেন, তথ্য অধিকার জেনে, বুঝে তথ্য আদান-প্রদানে তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা ও তথ্য গ্রহণকারীকে অনুরোধ জানান।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *