Sharing is caring!

tib---chapai-23.12 (2)চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ নির্বাচিত হলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভাকে দলীয় প্রভাব ও দুর্নীতি মুক্ত একটি আধুনিক ও মডেল পৌরসভায় রুপান্তর করার ঘোষনা দিয়েছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবির সহায়তায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সচেতন নাগরিক কমিটির উদ্যোগে ‘জনতার মুখোমুখি’ অনুষ্ঠানে মেয়র প্রার্থীরা। বুধবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত ‘প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থীদের পরিচিতি ও জনতার মুখোমুখি’ উন্মুক্ত এক অনুষ্ঠানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্ব›দ্বীতাকারী পাঁচ মেয়র প্রার্থী এই অঙ্গীকার করেন। তবে অনুষ্ঠান চলাকালে বিএনপির বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান পৌর মেয়র মাওলানা আবদুল মতিন দর্শকদের বেহাল সড়ক নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক দুবারের মেয়র আতাউর রহমানকে দায়ী করে দুর্নীতিবাজ বলে বক্তব্য রাখায় দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ও হট্রগোলের সৃষ্টি হয়। পুলিশ ও আয়োজকদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি দ্রুত ¯^াভাবিক হয়। সচেতন নাগরিক কমিটির আহবায়ক সেলিনা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ব্যতিক্রমধর্মী এই অনুষ্ঠানে ¯^াগত বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিষয়ক উপকমিটির আহব্বায়ক রায়হানুল ইসলাম লুনা। এরপর প্রার্থী ও ভোটারেরা দুর্নীতি বিরোধী শপথ নেন ও এক অপরের হাতে হাতে জড়িয়ে ধরেন। প্রথম পর্বে নির্বাচিত হলে পৌর উন্নয়নে করনীয় পরিকল্পনা সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন প্রতিদ্ব›দ্বীতাকারী পাঁচ মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগের সামিউল হক লিটন, বিএনপির  অধ্যাপক আতাউর রহমান, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মাওলানা আবদুল মতিন, জাসদের মনিরুজ্জামান মনির ও জাতীয় পাটির শাহাজাহান আলী। দ্বিতীয় পর্যায়ে তারা দর্শক শ্রোতাদের করা নির্বাচিত প্রশ্নের জবাব দেন। তবে জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সামিউল হক লিটন বলেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জনগন তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে তিনি তার নিজ¯^ তৈরী করা উন্নয়নের মাস্টার প্ল্যান অনুযায়ী পৌর এলাকার সমস্যার মূল চারটি বিষয় রাস্তা, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, সড়ক বাতি ও পানি সরবরাহ পরিস্থিতির উন্নয়ন করবেন। তিনি প্রতিটি ওয়ার্ডে কার্যালয় নির্মান ও চালু, বেবি কেয়ার সেন্টার, ¯^াস্থ্য সেবায় নিজ¯^ আ্যাম্বুলেন্স চালুর কথা বলেন। তিনি তরুন প্রজন্মের জন্য আধুনিক সুযোগ সুবিধা সৃষ্টির কথাও বলেন। সরকারী দলের প্রার্থী হিসেবে কাজ করার সুবিধের কথা জানিয়ে আবেগের বশে নয় ভেবে-চিন্তে ভোট প্রদানের জন্য ভোটারদের প্রতি আহব্বান জানান তিনি । সবাইকে নিয়েই কাজ করার কথা বলেন তিনি। বিএনপির মেয়র প্রার্থী আতাউর রহমান পুরো পৌরসভা কাঠামোর সামগ্রিক বনর্না দেন। তিনি বলেন নির্বাচিত হলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভাকে দলীয় প্রভাব ও দুর্নীতিমুক্ত আধুনিক পৌরসভায় রুপান্তর করবেন। সেখানে দলমত নির্বিশেষে সকল পৌরবাসীর সমঅধিকার প্রতিষ্ঠিত করা হবে। যেখানে সাধারন মানুষকে সেবা পেতে কোন ধরনের ঘুষ দিতে হবেনা। এছাড়া পৌরকর, পানি, রাস্তা, ¯^াস্থ্য সেবা, পার্ক, বস্তি উন্নয়নসহ সব সমস্যার সমাধানে তিনি চেষ্টা করবেন বলে প্রতিশ্রæতি দেন। তিনি পৌরসভার আয়ের উৎস নিয়েও কথা বলেন। তিনি পৌরসভা পরিচালনায় তার অভিজ্ঞতা ও অর্জন নিয়েও কথা বলেন। বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র মাওলানা মতিন বলেন, তার আমলে সুশাসন নিশ্চিত হওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা ২৬০ কোটি টাকার ইউজিপ-৩ প্রকল্পে অর্ন্তভূক্ত হয়েছে। তাই অসমাপ্ত কাজ শেষ করতেই তিনি নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। তিনি সাবেক মেয়র আতাউর রহমানের কঠোর সমালোচনা করে দুর্ণীতি ও ¯^জনপ্রীতির বিরুদ্ধে তার অবস্থানের কথা বলেন। জাসদ মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনির বলেন, তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে চাঁপাইনবাবগঞ্জকে একটি মডেল শহরে রুপান্তর করবেন। তিনি বিশেষ করে তরুন প্রজন্মের দিকে খেয়াল রাখবেন, তারা যেন কোন অপরাধ জগতের সাথে জড়িয়ে পড়তে না পারে। এছাড়াও বিশুদ্ধ পানি সরবারহ, রাস্তা উন্নয়ন, দরিদ্র মানুষের জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনার কথা অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন। তিনি নাগরিক সুবিধে নিয়ে তার দীর্ঘদিনের সংগ্রামের কথা জানান। জাতীয় পাটির মেয়র প্রার্থী শাহাজাহান আলী বলেন, তাকে ভোটাররা নির্বাচিত করলে পৌরসভাকে দুর্নীতিমুক্ত পৌরসভায় পরিণত করবেন। পৌর এলাকায় অত্যাধুনিক শিশু পাক নির্মান, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নসহ জনগনের সেবা দেয়ার ঘোষনা দেন তিনি।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *