Sharing is caring!

জেলার উন্নয়নে কাজ করার আহবান

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সপ্তাহব্যাপি আঞ্চলিক এস.এম.ই

পণ্য মেলার সমাপনী

♦ স্টাফ রিপোর্টার

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা স্টেডিয়ামে সপ্তাহব্যাপি ‘আঞ্চলিক এস.এম.ই পণ্য মেলার সমানপী অনুষ্ঠান হয়েছে। সোমবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা স্টেডিয়ামে মেলা সমাপনী অনুষ্ঠানে জেলার উন্নয়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন বক্তারা। বিসিক চাঁপাইনবাবগঞ্জের সহকারী মহাপরিচালক মো. শফিকুল আলম এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার টি.এম মোজহিদুল ইসলাম বিপিএম-পিপিএম, নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা. দাউদ হোসেন, নবাবগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মনোয়ারা খাতুন, প্রফেসর ইফফাত আরা নারগিস। সমাপনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খাদিজা বেগম। উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ড. চিত্রলেখা নাজনীন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু, স্বাধীন সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক তুফান, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোসা. সাহিদা আকতার, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়াউর রহমান পিপিএম, গ্রীণভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকসানা আহ্মদ, নারী উদ্যোক্তা আঞ্জুমান আরা লিপি ও আফসানা বেগম, এস.এম.ই’র গণসংযোগ কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান মাস্টার, জেলা ক্রীড়া অফিসার আকতারুজ্জামান রেজা তালুকদার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক মো. শাহজাহান আলী (সাজা), মো. শহিদুল ইসলাম, হায়দার আলীসহ জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জেলার বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী দপ্তরের প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। মেলায় ৫৩টি স্টলের মধ্যে কাঁসা শিল্প মধুমিতা বাসুনালয়কে ১ম পুরস্কার, চাঁপাই আম বাজার প্রা. লি. কে ২য় পৃরস্কার এবং মীম নকশি ঘরকে ৩য় পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা। বক্তারা জেলা ঐতিহ্যবাহী পণ্যসহ সকল পণ্যকে দেশে বিদেশে প্রচার ও বাজারজাতকরণে যে যার স্থান থেকে কাজ করার আহবান জানান। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, আজ আমি গর্বিত, যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ এক সময়ের জুয়া, উলঙ্গ নৃত্য, মাদক সেবনসহ নানা প্রকার নোংরা পরিবেশে হওয়া মেলা থেকে বের হয়ে এসেছে। এসব নোংরামীতে ভরা মেলার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছি। অনেক দিন থেকেই ভালো এবং রুচি সম্মত একটি মেলা আয়োজনের চেস্টায় ছিলাম। আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠানকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, নোংরামী ছাড়াও মেলায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ ভীড় জমাচ্ছে। এটা জেলা পুলিশের এবং আমার স্বার্থকতা। তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন পণ্যের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা দেশ বিদেশে পরিচিত। চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারীরা ঘর থেকে বেরিয়ে আসতে চায় না। জেলা নারীদের বিভিন্নভাবে ঘরের মধ্যে রেখে তাদের মন সংকুচিত করে রাখে। জেলার উন্নয়নে নারীদেরকে এগিয়ে নিয়ে আসা লক্ষে তিনি প্রতি মাসেই একটি করে নারী উদ্যোক্তাদের নিয়ে রুচীসম্মত এরকম মেলা আয়োজনের অনুরোধ জানান। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করার উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানিয়ে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী কাঁসা ও নকশি কাঁথাসহ অন্যান্য পণ্যের বিকাশ ঘটাতে হবে। জেলার ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের ঋণ নেয়ার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্মকর্তার সাথে সকল সমস্যা আলোচনার ম্যাধ্যমে সমাধান করে ঋণের ব্যবস্থা করা হবে। জেলার কাঁসা ও কাঁথা শিল্পকে এগিয়ে নিতে উপহার পণ্য হিসেবে বেছে নেয়ার আহবান জানান তিনি। সকল নারী-পুরুষ একসাথে কাজ করে জেলার উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহবান জানান প্রধান অতিথি। শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। উল্লেখ্য, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক), জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি (নাসিব), চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সহযেগিতায় ও এস.এম.ই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে জেলার ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের পণ্যের বাজারজাতকরনে সহায়তার লক্ষে ৭দিনব্যাপী ‘আঞ্চলিক এস.এম.ই পণ্য মেলা’ আয়োজন করে। মেলায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ও বাইরের জেলার কৃষি যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকারী শিল্প, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য শিল্প, পাট ও পাটজাত শিল্প, হস্ত ও কারুশিল্পসহ বিভিন্ন দেশী-বিদেশী পণ্যের ৫৩টি প্রদর্শণী ও বিক্রির স্টল বসে। এছাড়াও মেলায় দেশীয় বিভিন্ন খেলাধুলার আয়োজন করা হয়। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলা মেলায় প্রতিদিনই বিকেল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। মেলায় মিডিয়া সেন্টার, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, হেল্প ডেস্ক, মধুমিতা বাসুনালয়, উর্মি নকশি হাউস, আফসানা নকশি বুটিক ঘর, রাজশাহী নকশি ঘর, চাঁপাই আম বাজার (প্রাঃ) লিঃ, আদিবা বুটিক্স এন্ড টেইলার্স, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, জান্নাতী নিয়ামত মধু, ঐশ্বী ক্রিয়েট, শুভেচ্ছা নকশি ঘর, মীম নকশি কাঁথা, রাজিয়া নকশি কাঁথা ঘর, আজিজা নকশি কাঁথা, ২৪৭ হাট, পায়েল নকশি কাঁথা, নূর নকশী মহিলা জাগরণ, শিশু বিতান সেলাই ঘর, টক-ঝাল-মিষ্টি ঘর, আশা মনি সুউজ,স্বাস্থ্য সচেতন বুথ, ক্রেতা ও বিক্রেতা বুথ, ব্যাংক এশিয়া লিমিডেট, জোস, আর. এম. ফার বিপনী, আর.এফ ফ্যাশন জুয়েলারী, গ্রাউন্ড জিরো বুটিক, কারু কার্য, মিজান ফ্যাশন হাউস, ঢাকা চটপটি হাউস, রহমান লেদার, নুরানী আচার হাউস, সততা গার্মেনন্টস, সিটি হ্যান্ডি ক্রাফটস, আইরিন এন্টারপ্রাইজ, ম্যাজিক স্কুল জুনিয়র, প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি, মেসার্স রাজু অটো রাইস মিল (এরফান গ্রæপ), উলকা, বিসমিল্লাহ গার্মেন্টস, হিমু কসমেটিকস, সোমাইয়া এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স সাব্বির ট্রেডার্স নামে ৫৩টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *