Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার \ জেলার হিজড়া-বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ৫০দিনব্যাপী প্রশিক্ষনের উদ্বোধন ও বিভিন্ন স্তরের নারী-পুরুষ ও প্রতিষ্ঠানকে অনুদান প্রদান করা হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। রবিবার সকালে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের আয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে প্রশিক্ষন কর্মসুচীর উদ্বোধন করেন সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ। জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে এসময় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার টি.এম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম, জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোখলেশুর রহমান, হিজড়াদের মধ্যে ববিতা ও সিলা, দিলিপ কুমার পালসহ অন্যরা। উপস্থিত ছিলেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সাহিদা আখতার, জেলা কালচারাল অফিসার ফারুকুর রহমান ফয়সাল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আলমগীর হোসেন, বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যানগণসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। হিজড়া প্রতিনিধিরা বক্তব্যে বলেন, তারাকে সাধারণ মানুষ বা পরিবারের লোকজন স্বাভাবিক নারী-পুরুষদের মতো সু-দৃষ্টি দিয়ে না দেখায় অনেকটা অস্বাভাবিক পরিবেশে থাকতে হচ্ছে। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের জন্য যেসব উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছেন, সে জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে তাঁরা প্রশিক্ষনের মাধ্যমে নিজেদের হড়ে তোলে স্বাবলম্বী হয়ে অন্যদের মতো স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে চায়। এজন্য স্থানীয় প্রশাসন ও সমাজের সকল স্তরের মানুষের সহযোগিতাও চায় তারা। শেষে ১০০ জন নদীভাঙ্গন ও প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে এককালিন অনুদান, স্বেচ্ছাসেবী ৪২টি প্রতিষ্ঠানের মাঝে চেক বিতরণ, সদর উপজেলার ৬০ জন ক্ষুদ্র জাতিসত্তা নৃ-গোষ্ঠির জনগোষ্ঠির মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান ও ৮ জন প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিবরণ তুলে ধরেন এবং বিরোধী দলের বিভিন্ন কর্মকান্ডের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ইসলাম নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের নিয়ে এখনই আমাদের ভাবতে হবে। এখনও দেশ বিরোধীরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। তাই আগামীতে দেশ বিরোধীদের ভোট না দিয়ে, উন্নয়নের ধারাকে অব্যহত রাখতে আওয়ামীলীগকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় নিয়ে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। অতিথিগণ বলেন, বর্তমান সরকারের নেয়া টেকসই ও উন্নয়নে প্রকল্পের সহায়তায় দেশের দরিদ্র ও হিজড়া ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠির নারী-পুরুষরা পিছিয়ে থাকবে না। সরকার এসব প্রকল্পের জন্য বাজেটে ৪৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে এবং এসব জনগোষ্ঠির সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। জেলায় হিজড়াদের জন্য একটি আলাদা পল্লী গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। এজন্য সংসদ সদস্যসহ জেলা প্রশাসনেন সকল প্রকার সহযোগিতার প্রয়োজনীয়তার কথাও উল্লেখ করা হয়। হিজড়া সম্প্রদায়ের মাঝে গরু-ছাগল ও হাঁস-মুরগী খামার তৈরীর জন্য প্রশাসনের সকল সহযোগিতার আশ্বাস দেন অতিথিরা। হিজড়ারা সমাজের বোঝা নয় উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, এদের স্বাভাবিক জীবন যাপন করার জন্য সমাজের সকল স্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। তাদেরও চলাফেরার ক্ষেত্রে পরিবর্তণ ও সহনশীলতা নিয়ে আসতে হবে। সকলে মিলে এদের কাজ করলে অবশ্যই একটি সুখি সমৃদ্ধিশালী জেলা ও দেশ গঠন করা সম্ভব হবে। হিজড়াদের স্বাবলম্বী করার মাধ্যমে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয় তুলে ধরে সামাজিকভাবে হিজড়া সম্প্রদায়ের মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমাজের সকল স্তুরের মানুষদের আহবান জানান বক্তারা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *