Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫৩ বিজিবি’র অভিযানে

ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ ১ চোরাকারবারী আটক

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ ৫৩ বিজিবি’র অভিযানে জহুরপুর বিওপির সীমান্ত এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ইব্রাহিম নামে এক মাদক চোরাকারবারীকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়েছে। রবিবার ভোর রাতে ৪০৫ পিস ইয়াবাসহ আটক হওয়া ইব্রাহিম (৩৮)’র বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চরপাঁকা শ্যামপুর বাবুপুর গ্রামে। সে এনামুল হকের ছেলে। গুলিবিদ্ধ ইব্রাহীমকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ ৫৩ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল সাজ্জাদ সরোয়ার পিএসসি’র পাঠানো এক প্রেসনোটে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানানো হয়, বড় ধরণের ইয়াবা চোরাচালান হওয়ার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চরপাঁকা শ্যামপুর বাবুপুর গ্রামে ইব্রাহীমকে আটক করা হয় শনিবার। তাঁর দেয়া তথ্য মোতাবেক রবিবার ভোর রাত পৌনে ৫টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ ৫৩ বিজিবি’র হাবিলদার মোঃ নাছির উদ্দিন এর নেতৃত্বে একটি টহল দল জহুরপুর বিওপির দায়িত্বপূর্ণ সীমান্ত পিলার ১৬/২-এস এর নিকট ১০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সদর উপজেলার সাতরশিয়া মাঠে একটি বিশেষ অভিযান চালায়। এসময় ৭/৮ জনের সংঘবদ্ধ একটি মাদক চোরাকারবারী দল বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে পালাতে শুরু করে। এসময় বিজিবি টহল দল চোরাকারবারীদের চ্যালেঞ্জ করলে আবার একত্রিত হয়ে টহল দলের উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত আক্রমন শুরু করে। আক্রমন প্রতিরোধ করতে টহল দলের সদস্য সিপাহী মোঃ মেহেদী হাসান তার ব্যক্তিগত রাইফেল দ্বারা ১ রাউন্ড ফাঁকা ফায়ার করে। এতে চোরাকারবারীরা আরও উত্তেজিত হয়ে টহল দলের উপর চড়াও হয়। এসুযোগে আটককৃত মোঃ ইব্রাহিম টহল দলের কাছ থেকে পালিয়ে চোরাকারবারীদের সাথে যোগ দেয়। বাধ্য হয়ে সিপাহী মোঃ মেহেদী হাসান আরও ১ রাউন্ড এবং সিপাহী মোঃ ফেরদৌস আলম রাইফেল দ্বারা ২ রাউন্ড ফায়ার করে। এতে চোরাকারবারীরা ভারতের দিকে পালিয়ে যেতে থাকে। ফায়ারে পালিয়ে যাওয়া মোঃ ইব্রাহিম বাম পায়ের নিচে গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় টহল দল তাকে আবারো আটক করে। অভিযান চালানো স্থান থেকে চোরাকারবারীর ফেলে যাওয়া ৪০৫ পিস ইয়াবা এবং বাংলাদেশী নগদ ২১,৬৩০/- টাকা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ১ লক্ষ ২১ হাজার ৫’শ টাকা। ইব্রাহিমকে ব্যাটালিয়নের তত্বাবধানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিজিবি’র এ্যাম্বুুলেন্সে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়। এব্যাপারে ইব্রাহিমের নামে মাদক চোরাচালানের অভিযোগে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। মামলা নম্বর-০৪ তারিখ-০৩-০২-২০১৯। বর্তমানে ইব্রাহিম পুলিশের তত্বাবধানে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *