Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ আইসিটি বিভাগের কোন শিক্ষক ছাড়ায় নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজে নেয়া হয়েছে আইসিটি গ্রæপের এইচ.এস.সি পরীক্ষা। সরকারী কলেজে নেই কোন সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষকও। ক্লাস ও পরীক্ষা নেয়া হয় অন্য বিভাগের শিক্ষক দিয়ে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন অভিভাবক বলেন, যে বিভাগের কোন শিক্ষকই নেই। সেখানে আমাদের সন্তানরা কি শিখবে ওই বিষয়ে। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে শিক্ষক না থাকায় অন্য শিক্ষকের কাছে ক্লাসেই বা কতটুকু শিক্ষা গ্রহণ করবে। তারপরও অন্য বিভাগের শিক্ষক দিয়ে নেয়া হচ্ছে ব্যবহারিক পরীক্ষাও। এভাবে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে শিক্ষার্থীরা সঠিক শিক্ষা না পেলে, যে ক্ষতি শিক্ষার্থীদের হবে, তা পুরণ হওয়ার নয়। শিক্ষার্থীরা যে আইসিটি শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এর দায় কে নেবে?। বিষয়টির সত্যতা ¯^ীকার করে নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এ.কে.এম মনজুর রেজা জানান, কলেজে আইসিটি বিভাগের কোন শিক্ষক নেই, সেটা সত্য। সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষক না থাকায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষকদের অতিরিক্ত প্রশিক্ষন দিয়ে আইসিটি বিভাগের কার্যক্রম চালানো হয়। আইসিটি প্রশিক্ষিত বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষকদের দিয়ে শিক্ষার্থীদের ক্লাস ও অন্য প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদেরও সহযোগিতা করা হয়। ডিজিটাল যুগে আইসিটি বিভাগের মত গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে, এর দায় কে নেবে, এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যক্ষ মহোদয় বলেন, এবিষয়ের উত্তর আমার জানা নেই। বিষয়টির ব্যাপারে সঠিক উত্তর দিতে পারবেন বাংলাদেশ সরকার ও শিক্ষামন্ত্রী। গুরুত্বপূর্ণ এই আইসিটি বিভাগের বিষয়টির জন্য জরুরী ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগের ব্যবস্থা করবেন শিক্ষা বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এমনটায় দাবি জানিয়েছেন অভিভাবকরা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *