Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার \ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্তের ৪টি পশু বিট বন্ধের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন সীমান্ত এলাকাবাসি। সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হাসানের হাতে এই স্মারকলিপি তুলে দেন নারায়নপুর এলাকাবাসির পক্ষে মো. কামরুজ্জামান জামিল। এসময় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, জেলার সদর উপজেলা ও শিবগঞ্জ উপজেলার নারায়নপুর ও পাঁকা ইউনিয়নের বেলপাড়া, বাগপাড়া, মুসাহাক মন্ডলের পাড়া, তৈমুর মেম্বর পাড়া, মাঠপাড়া, রুস্তমপাড়া, সাত রশিয়া, দেবীপুর, সর্দারপাড়া ও চরপাঁকা, দক্ষিণ পাঁকা চরাঞ্চল এলাকার অসহায় ও দরিদ্র মানুষ। একদিকে চরাঞ্চল হওয়ায় তেমন কোন ফসল হয়না। বর্ষা মৌসুমে পুরো এলাকা পানিতে প্লাবিত হয়ে ক্ষতির সম্মুখিন হয়। কিছু সময়ে আমরা মাসকালাই, ভুট্টা, ধান ও পটলের চাষাবাদ করতে পারলেও বছরের অধিকাংশ সময় কর্মহীন জীবন যাপন করতে হয় এলাকার মানুষদের। সীমান্ত এলাকার মানুষ সৌহার্দ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করে আসছে। এলাকার মানুষ অবৈধভাবে সীমান্ত পার হয়ে গরু নিয়ে আসার সময় বিভিন্ন দূর্ঘটনার মধ্যে পড়তো। সরকারের রাজস্ব আহরণ ও এলাকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সীমান্ত এলাকায় বিট/খাটাল পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়। স্মারকলিপিতে আরো উল্লেখ্য করেন, সীমান্তবর্তী এলাকাটিতে অতন্দ্র প্রহরী বিজিবি সদস্যরা প্রতি মহুর্ত নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। একসময় সীমান্ত পথে অবৈধভাবে গরু আনার কারণে সীমান্ত এলাকায় হত্যাকান্ড হত। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের জোহরপুর ট্যাক ও জোহরপুর বিওপি এবং শিবগঞ্জ উপজেলার ওহেদপুর বিওপি ও রঘুনাথপুর বিট/খাটাল চালু হয়। বিট/খাটাল চালু হওয়ার প্রেক্ষিতে হতাহতের ঘটনা বন্ধ হয় এবং সরকারের রাজস্ব আহরণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এলাকার মানুষ কর্মহীন থাকার সময় মাঝে মধ্যেই সামান্য বিষয় নিয়ে বড় ধরণের ঝগড়াও লেগে যেত। কিন্তু এলাকার মানুষরা কর্মসংস্থান খুজে পাওয়ায় কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকে। কিন্তু এলাকার কিছু অসাধু মানুষ এসব মানুষদের অবৈধভাবে কোন কাজে ব্যবহার করতে না পারায় বিভ্রান্তি সৃষ্টির মাধ্যমে বিট/খাটালগুলো বন্ধের ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। বিট/খাটালগুলো বন্ধ হয়ে ওইসব এলাকায় আবারও অবৈধ কাজ বৃদ্ধি পাওয়ার আশংকা রয়েছে। সবকিছু বিবেচনা এনে সীমান্তের ৪টি বিট/খাটাল চালু রাখার দাবী এলাকাবাসীর।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *