Sharing is caring!

‘চুয়াডাঙ্গা সদর-আলমডাঙ্গা’সহ চুয়াডাঙ্গার

সব আসনে বিএনপির একাধিক প্রার্থী, ক্ষুব্ধ

দুদু-মওদুদ বলছেন কৌশল

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিটি আসনের বিপরীতে একাধিক প্রার্থীদের নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিএনপি। প্রতিটি আসনেই একাধিক প্রার্থী থাকায় বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতা-কর্মীরা বিভ্রান্তির মধ্যে পড়েছেন। এদিকে সারা দেশের আসনগুলোতে একাধিক প্রার্থী দিয়ে বিভক্তি সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে হতাশা প্রকাশ করেছেন চুয়াডাঙ্গা-১ (চুয়াডাঙ্গা সদর-আলমডাঙ্গা) আসনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী শামসুজ্জামান দুদু। একাধিক প্রার্থী থাকায় শেষ পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচনে পিছিয়ে পড়বে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন দলটির একাধিক সিনিয়র নেতা।

একাধিক প্রার্থীর উপস্থিতি বিএনপির নির্বাচনী ব্যবস্থায় নেতিবাচক প্রভাব পড়বে মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, কৌশলগত কারণে বিএনপি প্রতিটি আসনে বিকল্প প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়। সেই কৌশল এখন বিএনপির গলার কাটায় পরিণত হয়েছে। এখন সেকেন্ড ও থার্ডম্যান হিসেবে মনোনয়ন পাওয়া বিএনপি নেতারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে তৈরি হয়েছে অস্বস্তি। আমি প্রথম থেকেই এই কৌশলের বিরোধিতা করেছিলাম। আমি জানতাম তৃণমূলের এইসব নেতারা একবার মনোনয়নপত্র হাতে পেলেই নিজেদের হবু সাংসদ ভাবতে শুরু করবেন। এখন সেই ভুলের মাশুল দিতে হচ্ছে বিএনপিকে। নারায়ণগঞ্জের পাঁচটি আসন, দিনাজপুর-৬ আসন, টাঙ্গাইল-৮, চট্টগ্রামের একাধিক আসনে একাধিক প্রার্থী নিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েতে হয়েছে। রাজনীতিতে ছোট কিছু ভুলের জন্য মাঝে মাঝে বড় ধরনের বিপদের সম্মুখীন হতে হয়।

বিষয়টি ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, নির্বাচনে ৩শ’ আসনের মধ্যে প্রায় প্রতিটি আসনে প্রাথমিকভাবে একাধিক প্রার্থী দিয়েছে বিএনপি। এটি আমাদের কৌশলের একটি অংশ। শুনতে খারাপ লাগলেও এটি সত্য যে, আমাদের প্রায় প্রত্যেক প্রার্থীর বিরুদ্ধে ঋণখেলাপি, দুর্নীতি, রাষ্ট্রীয় সম্পদ তছরুপ করার মতো অভিযোগ রয়েছে। যদিও এসব সত্য নয়। এ নিয়ে কিছুটা বিপাকে পড়েছে বিএনপির সিনিয়র নেতারা। প্রায় প্রত্যেক আসনেই দুই-তিন জন, কোন কোন আসনে চারজনকেও মনোনয়ন দেয়ায় অস্বস্তি বিরাজ করছে। সিনিয়রদের সমকক্ষ ভেবে মনোনয়নপ্রাপ্ত জুনিয়ররা অসম্মান করছে। এ নিয়ে মনে অন্তরজ্বালা থাকলেও কেউ মুখ খুলছেন না। শেষ অবধি আসনগুলোতে এককপ্রার্থী হিসেবে কাদের নাম উঠে আসে তা জানতে ও দেখতে আরও অপেক্ষা করতে হবে। আশা করছি, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আগ মুহূর্তে এসে প্রত্যেকটি আসনে একক প্রার্থী চূড়ান্ত করা সম্ভব হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *