Sharing is caring!

দর্পণ ডেস্ক \ রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলায় ছাগল চুরির অভিযোগে দুই স্কুলছাত্রকে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনসহ ১৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আন্দুয়া গ্রামে বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। উপজেলার ঝালুকা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আব্দুল মোতালেব জানান, মঙ্গলবার রাতে দুই কিশোর আন্দুয়া গ্রামের রেজাউলের বাড়ি থেকে ছাগল চুরি করে। বুধবার ভোরে রাজশাহীর হরিয়ান বাজার দিয়ে ছাগলটি নিয়ে যাওয়ার সময় নিরাপত্তা প্রহরীর সন্দেহ হলে ছাগলসহ তাদের আটক করে। খবর পেয়ে ছাগলসহ দুইজনকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। প্রথমে তারা চুরির কথা অ¯^ীকার করে। পরে চড়থাপড় দিলে ¯^ীকার করে। এ বিষয়ে গ্রামের সালিশ-বৈঠক হয় এবং সালিশে দুইজনকে ১৬ হাজার টাকা জরিমানা হয়। এর মধ্যে আড়াই হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে ছাগলের মালিক রেজাউলকে। আর বাকি টাকা খরচ হয়েছে দুইজনকে হরিয়ান বাজার থেকে ছাড়িয়ে আনতে। দুই কিশোর উপজেলার আমগাছী সাহারবানু উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। শালিস বৈঠকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাহার আলী মণ্ডল উপস্থিত ছিলেন। তবে এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি তিনি। দুর্গাপুর থানার ওসি রুহুল আলম বলেন, চুরির অভিযোগে দুই কিশোরকে নির্যাতনের বিষয়টি স্থানীয় সূত্রে শুনেছি। তবে এব্যাপারে থানায় কোনো অভিযোগ হয়নি। কেউ অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নির্যাতনের শিকার এক কিশোরের বাবা বলেন, বাচ্চারা ভুল করেছে। তাই বলে তাদের গাছে বেঁধে পেটানো কোন আইনে আছে আমার জানা নেই। আবার ছাগল ফেরত দেওয়ার পরও ১৬ হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি আইনের আশ্রয় নেবেন বলেও জানান।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *