Sharing is caring!

প্রেস বিজ্ঞপ্তি \ শিবগঞ্জ উপজেলার ছত্রাজিতপুর ইসলামি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং বিশিষ্ট সমাজসেবক মরহুম আলহাজ্ব মাওলানা মোহাঃ ডা. হাফিজ উদ্দীনের মৃত্যুতে এক স্মৃতিচারণ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। শুক্রবার বিকেলে পাঠাগার চত্বরে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল হক। অনুষ্ঠানে স্মৃতচারণ করেন শিবগঞ্জ মহিলা ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুস সালাম, আফতাব উদ্দীন, মাওলানা ইয়াকুব আলী, হাফেজ মোঃ আব্দুল মজিদ, আলহাজ্ব তসলিম উদ্দীন চৌধুরী, আলহাজ্ব আশরাফ আলী প্রমুখ। এছাড়াও অন্যন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছত্রাজিতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলাম, ছত্রাজিতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আশরাফ আলী, আফতাব উদ্দীন, ডা. মুজিবুর রহমান, শফিকুল ইসলাম বাদল, মাওলানা বাবর আলী এবং সাংবাদিক জালাল উদ্দীন প্রমুখ। উল্লেখ্য, আলহাজ্ব মাওলানা মোঃ ডা. হাফিজ উদ্দীন ১৯৩৬ খ্রি. পশ্চিম বঙ্গের কালিয়াচক থানাধীন বালুয়াচরা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৪৮ সালে ১২ বছর বয়সে রাধাকান্তুপুর নামক স্থানে আসেন। পরবর্তীতে ছত্রাজিতপুর আলিয়া মাদ্রাসা হতে আলিম এবং পাবনা আলিয়া মাদ্রাসা হতে কামিল পাস করেন। তখন মাদ্রাসায় দাখিল পাস এসএসসি সমমান থাকলেও আলিম পাস এইএসসি সমমানের ছিল না। ফলে তিনি এইচ.এস.সি ভর্তি হন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে এবং ছাত্রসংসদের এজিএস নির্বাচিত হয় স্বাধীনতা যুদ্ধের আগের বছর। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ছত্রাজিতপুর জাহাঙ্গীর পাড়ায় বিয়ে করে বসতি স্থাপন করে পল্লী চিকিৎসক হিসেবে নিয়োজিত হন। তিনি দেশের প্রথম মুসলিম রাষ্ট্রদূত আতাউর রহমান কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত চন্ডিপুর হেদায়েতুল্লাহ মহিলা মাদ্রাসার ইবতেদায়ী শাখার প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি ছত্রাজিতপুর কেন্দ্রীয় গোরস্থান, ছত্রাজিতপুর শাহনেয়ামত উল্লাহ শিশু সদন, ছত্রাজিতপুর হাফেজিয়া মাদ্রাসা, ছত্রাজিতপুর বাজার জামে মসজিদ এবং ছত্রাজিতপুর ইসলামি পাঠাগারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। তিনি বাংলা ভাষার পাশাপাশি ইংরেজি, আরবি, উর্দু, ফার্সি এবং হিন্দি ভাষায় অনর্গল কথা বলতে পারতেন। তিনি গত ১৯ অক্টোবর ইন্তেকাল করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *