Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবানগঞ্জের শিবগঞ্জে রাতের আঁধারে রুবেল হোসেন (২৮) নামে এক যুবককে তুলে নিয়ে গিয়ে তার দুই হাতের কব্জি কেটে নিয়েছে এলাকার সন্ত্রাসীরা। বর্তমানে যুবক আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। রুবেল চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের লাভাঙ্গা গ্রামের মৃত খোদাবক্সের ছেলে ।
পদ্মা নদীর একটি ফেরী ঘাটের দখল নিয়ে ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিবঞ্জের উজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফয়েজ ও তার ক্যাডাররা এঘটনা ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ রুবেলের স্বজনদের।
রুবেলের চাচাতো ভাই ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল সালাম জানান, বুধবার রাতে রুবেল তার দুই বন্ধু তার ২ বন্ধু রবিউল এবং হাবুকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলো। এসময় শিবগঞ্জের উজিরপুর বেড়ি বাঁধের কাছে কয়েকজন তাদের পথ রোধ করে ও পাশেই অবস্থিত চেয়াম্যান ফয়েজের চেম্বারে গিয়ে দেখা করতে বলে। রুবেল তার বন্ধুদের নিয়ে চেম্বারে গেলে, তার দুই বন্ধুকে ঘরে আটকে রাখে চেয়ারম্যানের লোকজন। আর রুবেলের মুখ ও চোখ গামছা দিয়ে বেঁধে পদ্মা নদীর বাঁধের নিচে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে নির্যাতন করে দুই হাতের কব্জি কেটে নেয় সন্ত্রাসীরা চেয়ারম্যানের ক্যাডাররা। বুধবার গভীর রাতে উজিরপুরের জলবাজার এলাকায় পূর্ব শত্রæতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।
রাত আনুমানিক একটার দিকে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা গুরুতর হলে রুবেলকে রামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
ফয়েজ চেয়ারম্যন পূর্ব শত্রæতার জের ধরে এমনটা করেছে উল্লেখ করে সালাম জানান, নিউ পদ্মা ফেরি ঘাট নিয়ে বেশ আগ থেকেই চেয়ারম্যান ফয়েজের সাথে তাদের দ›দ্ব চলছিল। এমপি ও তার ভাইয়ের মধ্যস্থতায় উভয় পক্ষ মিলেমিশে ঘাটটি চালিয়ে আসছিলো। এর মাঝে ফয়েজ ফেরি ঘাটটি পুরোটা নিজের নিয়ন্ত্রনে আনতে রুবেলের সাথে এমনটা করেছে।
শিবগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আতিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত চলছে এবং দোষীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তবে এখন পর্যন্ত রুবেলের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। চেয়ারম্যান ফয়েজ এর নির্দেশে এবং তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী রুবেলের ২ হাতের কব্জি কেটে নেয়ার অভিযোগে বিষয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়েও তদন্ত চালানো হচ্ছে, অবশ্যই দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *