Sharing is caring!

20160525_130646 স্টাফ রিপোর্টার \ রাজশাহীর জেলার তানোর উপজেলার দিবস্থলী এলাকায় জমি নিয়ে শত্রæতার জের ধরে রাতের আঁধারে তান্ডব চালায় দূর্বৃত্তরা। কেটে ভেঙ্গে নষ্ট করে আ¤্রপালী ও বারি ৪ এবং গৌরমতি জাতের ৭০০টি আম গাছের বাগান। পূর্ব শত্রæতার জের ধরে আম গাছগুলো কেটে ফেলেছে রাজশাহীর ফরহাদ হোসেন ও তার লোকজন বলে মালিক প¶ের অভিযোগ। তবে, এঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দেয়া হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্থ বাগানের মালিক ও কৃষকের। সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, রাজশাহীর তানোর উপজেলার দিব্যস্থলী মৌজার হালদাগ নং ৩৬৪, ৩৬৮, যার জমির পরিমান ১.৪৬ একর। জমির মূল মালিক শিবগঞ্জ উপজেলার আলহাজ্ব নুরুল ইসলামের ২ ছেলে নাজমুল হক, আলতাব হোসেন ও ৩ মেয়ে, শেফালী, মোস্তারি এবং ফেনিয়ারা। ২ ভাই ও ৩ বোনের নামীয় সম্পত্বি ক্রয় সুত্রে শিবগঞ্জ উপজেলার তসির আহমেদ বর্তমানে জমির মূল মালিক। গত ৬ মাস পূর্বে তসির আহমেদ উক্ত জমিতে আম্রপালী, বারি ৪ এবং গৌরমতি জাতের ৭০০টি আম গাছ লাগান। কিন্তু আম গাছ লাগানোর কিছুদি20160525_123753ন পার না হতেই (অর্থাৎ ০৭/০৫/২০১৬ইং) পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাঁর জমিতে লাগানো আমগাছ গুলো রাতের আঁধারে উপড়ে, কেটে ও ভেঙ্গে নষ্ট করে ফেলে দূর্বৃত্তরা। পরের দিন স্থানীয় লোকজন বাগানের আমগাছ গুলো ভাঙ্গা  অবস্থায় দেখে বাগানের মালিক তসির আহমেদকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অবহিত করলে পরের দিন তসির আহমেদ তাঁর বাগানে আসেন এবং গাছের দূরঅবস্থা দেখেন। বাগানের আমগাছ গুলো ভাঙ্গা অবস্থায় দেখে ঘটনার ২দিন পর তসির আহমেদ নিজেই বাদী হয়ে তানোর থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন। কিন্তু অভিযোগ দাখিলের ১৬দিন পার হলেও তানোর থানা পুলিশ কাউকে এখনো আটক করতে পারেনী বা এঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। পুলিশ এখনো কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় বাগান মালিক প¶ হতাশায় ভুগছেন। এ বিষয়ে আম বাগানের মালিক তসির আহমেদ জানান, আমি রাজশাহীর তানোর উপজেলার কলমা ইউনিয়নে দিব্যস্থলী মৌজার ৩৬৪, ৩৬৮হাল দাগে আম্রপালী ৭০০টি আম গাছ লাগাই। কিন্তু আমগাছ লাগানোর পর আমার আম বাগানের সমস্ত গাছ উপড়ে, ভেঙ্গে, কেটে ফেলেছে দূর্বৃত্বরা। আমি অনেক কষ্ট করে প্রায় ৬ল¶ টাকা ব্যায়ে সেই আম বাগানটি গড়ে তুলেছিলাম। কে বা কাহারা আমের গাছ গুলো কেটে ফেলেছে এমন প্রশ্নের উত্তরে তসির আহমেদ জানান, অনেক দিন থেকে উক্ত জমি গুলো রাজশাহীর রাজপাড়া থানার ল¶ীপুর গ্রামের ফরহাদ আলি দেখাশুনা করত। সেই সুযোগে ফরহাদ আলি এক সময় জমির জাল দলিল তৈরী করে নিজেই জমির মালিক সেজে বসেন। পরে আমরা জমির মূল মালিকদের কাছ থেকে জমি ক্রয় করি এবং সেই জমিতে আম গাছ লাগাই। সেই পূর্বশত্রুতার জের ধরে ফরহাদ আলি আমাদের আম গাছগুলো কেটে ফেলেছে বলে তিনি জানান। এঘটনায় তসির আহমেদ তানোর থানায় ফরহাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দ্বায়ের করলেও তানোর থা20160525_130516না পুলিশ এখনো কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেন নি বলে জানান। এ বিষয়ে তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে মুঠোফোনে যোগোযোগ করা হলে তিনি জানান, তসির আহমেদের অভিযোগটি আমলে নেয়া হয়েছে এবং আসামী ধরার জন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান। এব্যাপারে অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা তানোর থানার এস.আই সাইফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। অনেক গাছ কেটে ভেঙ্গে নষ্ট করেছে দূর্বৃত্তরা। তবে কে বা কারা এঘটনা ঘটিয়েছে, এর কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। বাগান মালিকের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। জমি নিয়ে বিরোধের কারণেও এঘটনা ঘটতে পারে। তবে ¯^াক্ষ্য প্রমান ছাড়া কোনটায় সঠিকভাবে বলা সম্ভব নয়। অভিযোগের বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে, তদন্ত শেষে ¯^াক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *