Sharing is caring!

তিন বছরে পদার্পণ করলো চাঁপাইনবাবগঞ্জ

হেল্পলাইন \ শুভকামনা ‘দর্পণ পরিবার’র

♦ স্টাফ রিপোর্টার 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ভিত্তিক সবচেয়ে জনপ্রিয় কমিউনিটি ফেসবুক গ্রæপ “চাঁপাইনবাবগঞ্জ হেল্পলাইন” পথচলার দুই বছর পার করে তিন বছরে পার রাখলো। বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া কয়েকজন তরুণের উদ্যোগে যাত্রা শুরু করে সংগঠনটি ২০১৮ সালের ২৮ মে। অনেক চড়াই উৎরায় পার করে ২টি বছর পার করেছে “চাঁপাইনবাবগঞ্জ হেল্পলাইন”। ‘পথচলা আরও সুন্দর ও সফল হোক’ সংগঠনের সমৃদ্ধি কামনা করে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘দর্পণ পরিবার’ এর পক্ষ থেকে ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর প্রকাশক ও সম্পাদক, ‘দর্পণ টিভি’ (অনলাইন) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু।
এ উপলক্ষে ২৮ মে বৃহস্পতিবার রাত ১০ ঘটিকায় ফেসবুক গ্রæপে লাইভ আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্বের আয়োজন করা হয়। উক্ত লাইভ আলোচনায় অংশ নেন হরিমোহন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও কলাম লেখক মো: আজমাল হোসেন মামুন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃতি সন্তান খুলনা জেলার সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ডা. মো: তাহমিদুল ইসলাম তমাল এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সহকারী পরিচালক মো: জহিরুল ইসলাম। আলোচনাই অংশ গ্রহণকারীগণ সংগঠনের দুই বছর পূর্তিতে অভিনন্দনের সাথে শুভকামনা জানান এবং উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে দিক নির্দেশনামূলক নির্দেশনা দেন।
সংগঠনের স্বপ্নদ্রষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আবুল কালাম আজাদ জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ হেল্পলাইন একটি অলাভজনক, অরাজনৈতিক ও জনকল্যাণমূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, যা বর্তমানে জেলার প্রতিটি উপজালার মানুষের কাছে পরিচিত। ‘তারুণ্যের বিজয়-মানবতার সেবায়’ শ্লোগানে মানুষের আশা, আকাঙ্খা, চাহিদা, সামাজিক দায়বদ্ধতার নিরিখে কাজগুলো চালিয়ে যাবার কথা জানান তিনি। এদিকে সংগঠনটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আবুল হাসনাত পরশ বলেন, গুটিকয়েকজন মিলে গড়ে তোলা সংগঠনটি নানান চড়ায় উৎরায় পার করে দুই বছর পূর্ণ করেছে সংগঠকদের দক্ষ ব্যাবস্থাপনার কারনে এবং সাধারণ মানুষের ভালোবাসায়। তিনি আরো জানান, বর্তমানে সংগঠকগণ আরো দক্ষ জনশক্তি ও মানবিক স্বেচ্ছাসেবী তৈরি করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাকে মডেল জেলা হিসেবে গড় তোলার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠনটির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আতিক হাসান এখন পর্যন্ত সংগঠনের কার্যক্রমের তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, বিগত দুই বছরের সেবা ও জনকল্যাণমুখী কাজগুলো হলোঃ নিয়মিত অনলাইনে তথ্য সেবা প্রদান, প্রতিবছর শীতবস্ত্র বিতরণ, ঈদ খাদ্য সামগ্রী ও শিশুদের ঈদবস্ত্র বিতরণ, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান, গরিব শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা, অসুস্থ ব্যাক্তি/শিশুদের চিকিৎসার ব্যবস্থা, অনলাইনে জ্ঞানমূলক কুইজ আয়োজন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতা তৈরি ও অসহায় পরিবারে খাদ্য সরবরাহ। তিনি আরো জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ হেল্পলাইনের কর্মসূচির মধ্যে অন্যতম হলো, রক্ত জোগান দেয়া। এজন্য দিনরাত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে CNH Blood Fighters টিমের সদস্যগণ। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ব্যাগ রক্ত জোগাড় করে দিয়েছে তারা।
সংগঠনের বর্তমান সভাপতি আধুনিক সদর হাসপাতাল চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মো: মাহফুজ রায়হান জানান, দৃঢ় প্রত্যয় এবং স্বপ্ন নিয়ে সংগঠনের তরুণরা সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে জেলার মানুষকে ফেসবুক গ্রæপের মাধ্যমে একত্রিতকরন, সমন্বয় এবং জনকল্যাণের মাধ্যমে সকলের মনে জায়গা করে নিয়েছে তারা। আরো জনকল্যানমূলক কর্মসূচির বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, সংগঠনটি দ্বিতীয় বর্ষ পূর্তি উপলক্ষে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট প্রকাশ করেছে। ওয়েবসাইট লিঙ্ক www.chapainawabganjhelpline.org|
এর আগে ফেসবুক গ্রæপের মেম্বার সংখ্যা ৫০ হাজার পূরণ হওয়ায় ইউটিউব চ্যানেল খোলে তারা। ইউটিউব ও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃৃতিসহ সংগঠনের কার্যক্রম তুলে ধরা হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *