Sharing is caring!

DSC03108 প্রেস বিজ্ঞপ্তি \ “নওগাঁর নিয়ামতপুরে আদিবাসী লুইস সরেনকে পুড়িয়ে হত্যা ও চঞ্চলা পাহানকে ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে এবং অপরাধীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তির দাবিতে” জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর থানা শাখার উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকালে নিয়ামতপুর উপজেলা চত্বরে বিক্ষোভ ও সমাবেশ হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিলটি নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদ থেকে শুরু হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। বিক্ষোভ ও মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর থানা শাখার আহবাক আজিত মুন্ডা। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আদিবাসী যুব পরিষদ নওগাঁ জেলার সভাপতি মার্টিন মুর্মু, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বিভূতি ভূষণ মাহাতো, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হেমন্ত মাহাতো, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক নকুল পাহান, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ পোরশা থানার সভাপতি আইচন পাহান, নিহত লুইচ সরেনের স্ত্রী যুগিতা হেমব্রম, ছোট ভাই লোকাশ সরেন, বোন সেলেন্তিনা সরেন, আদিবাসী নেতৃ বাসন্তী টপ্য, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ নিয়ামতপুর থানার যুগ্ম-আহবায়ক বিজয় নিন্দুয়ার। সমাবেশ কর্মসূচির সঞ্চালনা করেন আদিবাসী ছাত্র পরিষদ নিয়ামতপুর থানা শাখার যুগ্ম-আহŸায়ক দয়াল রবিদাস। উল্লেখ্য, গত DSC03189১০ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের চাপড়া গ্রামের লুইচ সরেন (৪৫) নামে এক আদিবাসীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। উপজেলার ভাবিচা জাবড়ীপাড়া গ্রামের মাঠে আগুনে পোড়ানো লুইচ সরেনের লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশটি উদ্ধার করে। লাশের শরীরে অস্ত্রের আঘাত ছিল। পরিধানের বশনসহ মুখোমন্ডল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। প্রথমে সনাক্ত করা না গেলেও পরে পরিচয়ে জানা গেছে, নিহত ব্যক্তির নাম লুইচ সরেন। উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের চাপড়া আদিবাসীপাড়ার মৃত শংকরের ছেলে লুইচ সরেন। লুইচের এ মৃত্যু স্বাভাবিক নয়, হত্যাকান্ড বলে দাবী পরিবারের সদস্যদের। পুলিশ ধারনা করছে রাতে লুইচকে কে বা কারা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে আগুনে পুড়িয়ে মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে যায়। এই ঘটনায় হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন দুই আদিবাসীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের ভাবিচা জাবড়ীপাড়া নিজ বাড়ি থেকে তাদের আটক করা হয়। কিন্ত প্রকৃত  আসামীরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। অপরদিকে গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে নিয়ামতপুরে চঞ্চলা পাহান (১৬) নামে এক আদিবাসী নারীকে নিজ বাড়িতে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। নিহত চঞ্চলা আহারকান্দার গ্রামের পঞ্চানন পাহানের মেয়ে। নিহতের পরিবারের দাবী  তাদের  মেয়েকে ধর্ষণ করে পরিকল্পিত ভাবে শ্বাস রোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে কি কারণে হত্যা করা হয়েছে তার কারণ জানাতে পারেনি। ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ কোন আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি। সমাবেশ থেকে বক্তারা আদিবাসীদের প্রতি সকল ধরনের নির্যাতন নীপিড়নের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আদিবাসীদের জান-মাল ও জীবনের নিরাপত্বা দাবি করেন। সমাবেশ শেষে নিয়ামতপুরে আদিবাসীদের হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণ ও উচ্ছেদের  প্রতিবাদে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *