Sharing is caring!

নজরুল ইসলাম তোফা \ একই সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হলেন বাংলাদেশের টাইগার রাজিব এবং কলকাতার স্নেহা রায় চৌধুরী। গত ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ তারিখে নিউ ওয়ান প্রোডাকশন হাউজ এর আয়োজনে হোটেল পার্কে শুভ সন্ধ্যা অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়। সে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেছিলেন নিউ ওয়ান প্রোডাকশন এর চেয়ারম্যান লব মল্লিক। শুভেচ্ছান্তে, রুদ্র এন্টারটেইনমেন্ট এর কর্নধার মিন্টু কর্মকার এবং সার্বিক সহযোগীতায় রুদ্র এন্টারটেইনমেন্ট এর সিনিয়র সহঃ পরিচালক প্রসেনজিৎ শীল উপস্থিত ছিলেন। সুদক্ষ পরিচালক লব মল্লিকের পরিচালনায় ‘তিন পরশো’ সিনেমার মাধ্যমে টালিগঞ্জে অভিষেক হচ্ছে টাইগার রাজিবের। সেই সময় অর্থাৎ ১০ ফেব্রুয়ারি এই ছবিতে টাইগার রাজিব ও স্নেহা রায় চৌধুরীকে চুক্তিবদ্ধ করেন। আবার সে মুহূর্তে সুদক্ষ পরিচালক মিন্টু কর্মকারের নদী ছবিতেও চুক্তিবদ্ধ করেছিলেন টাইগার রাজিব ও স্নেহা রায় চৌধুরী। এই সিনেমায় ‘নদী’ চরিত্রে অভিনয় করবেন কলকাতার হিরোইন মেঘলা হালদার। মেঘলা হালদার অন্য এক শুটিংয়ে থাকায় সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি। ‘তিন পরশো’ সম্পর্কে নজরুল ইসলাম তোফাকে পরিচালক লব মল্লিক বলেন, এ ছবিটি ভিন্ন ধারার ছবি হবে, ছবিতে দর্শক ভিন্ন কিছু উপভোগ করবে বলে আশা পোষণ করেন। আর টাইগার রাজিবের অভিনয় তিনি দেখেছেন, রীতিমত তার অভিনয়ে মুগ্ধ। আরও বললেন, তার অভিনয় করার আগেই গল্পটা পড়ে নেওয়ার এক ধরনের দক্ষ ভাব রয়েছে এবং খুব দ্রুত গল্পের চরিত্রে মিশে যেতে পারে। এটা তার একটা ভালো দিক বলা যায়। আর কলকাতার স্নেহা সম্পর্কেও জানান দিলেন, সেও অত্যন্ত ভালো মানের অভিনেত্রী। কোন কিছুতেই যেন তার তুলনা হয়না। খুবই ভালো কাজ করে, তিনি খুব আশাবাদী দর্শক প্রত্যাশা অবশ্যই পুরন হবে। পক্ষান্তরে পরিচালক মিন্টু কর্মকার ‘নদী’ সম্পর্কে বলেছেন, ছবিটি সমাজের সব শ্রেনীর মানুষের জন্য একটা ম্যাসেজ নিয়ে আসবে। আসলেই বাস্তবধর্মী শিক্ষামুলক এবং রোমান্টিকতা খোঁজে পাবে দর্শক। সিনেমাটির কেন্দ্রীয় চরিত্র অর্থাৎ নদী নামভূমিকায় মেঘলা হালদার রয়েছে। অসাধারন গুনি একজন অভিনেত্রী। খুবই ভালো কাজ করেন। আর টাইগার রাজিব তো আরেকটা চমকই বলা চলে। সেতো সব দর্শককে মাতিয়ে রাখার মতো পরিশ্রমী ও জনপ্রিয় অভিনেতা। সঙ্গে স্নেহা রায় চৌধুরী তো আছেই। সব মিলিয়ে নিঃসন্দেহে এটি অবশ্যই ভালো ছবি হবে। তিনি অত্যন্ত আশাবাদী সব শ্রেণীর শ্রোতাদের দৃষ্টি নন্দন হবে। এসম্পর্কে টাইগার রাজিবের নিকট জানতে চাইলে তিনি অকপটে বলেন, অভিনেত্রী নন্দিনী দি’র হাত ধরেই কলকাতার অভিনয় জগতে যাওয়া হয়েছিল। পরিচালক লব মল্লিকের সঙ্গে তাকে অনেক গভীর ভাবে পরিচয় করিয়ে দেন। তাঁর প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে আরও বলেন, লব মল্লিক ভাইয়ের মাধ্যমেই তাঁর বন্ধু মিন্টু কর্মকারের সাথে পরিচয় হয়। তাঁদের উভয়ের পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমাতে অভিনয় করার সুযোগ তিনিই করে দিয়েছিলেন। কলকাতার টালিগঞ্জের বুকে কাজ করছেন এবং খুব মজাও নাকি পাচ্ছেন। তিনি বললেন, প্রথমেই অনেক গুনী ও উচ্চ পর্যায়ের অভিনেতা, অভিনেত্রীদের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়েছে সে জন্য মনে করেন অনেক সৌভাগ্যবান। নজরুল ইসলাম তোফা, টিভি ও মঞ্চ অভিনেতা, চিত্রশিল্পী, সাংবাদিক, কলামিষ্ট এবং প্রভাষক।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *