Sharing is caring!


নাচোল প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে আদীবাসী ভণ্ড কবিরাজের কাছে অসুস্থ ¯^ামীর চিকিৎসা নিতে গিয়ে এক মুসলিম গৃহবধু ধর্ষিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। মৌখিক অভিযোগের ১ ঘন্টার মধ্যে নাচোল থানায় আটক হয়েছে ওই কথিত কবিরাজ। ধর্ষক কবিরাজকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিতে দিনভর তদবির চালিয়েছেন আদিবাসী নেতারা। রবিবার সকালে ধর্ষক কবিরাজকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফাছির উদ্দিন। ধর্ষিতার এজাহারসূত্রে  জানা গেছে, গত ২৬ মে রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার নেজামপুর ইউপির ধরইল দিঘিপাড়া গ্রামের মৃত লাল কর্মকারের ছেলে কবিরাজ আমিন কর্মকার (৫৫)’র বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ওই রাতে ধর্ষিতার অসুস্থ্য ¯^ামীকে কথিত কবিরাজের নিকট চিকিৎসার জন্য গেলে ভণ্ড কবিরাজ কৌশলে গৃহবধুকে তাবিজ ও গাছের শিকড় তোলার কথা বলে বাড়ির বাইরে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে অজ্ঞান করার পর ধর্ষন করে বাড়িতে ফিরে আসে। প্রায় ১ঘন্টা পর ¯^ামী ও শাশুড়ি বাড়ির বাইরে ওই গৃহবধুর কান্নাকাটির শব্দ শুনে বাড়ির পিছনের জঙ্গল থেকে ওই গৃহবধুকে উদ্ধার করেন। ওই মুহুর্তে ভণ্ড কবিরাজ গৃহবধুর মুখে পড়া পানি ছিটানোর সময় এঘটনা কাউকে বললে তার ¯^ামী মারা যাবে বলে তাকে ভয় দেখায়। ধর্ষিতার ¯^ামী ও শাশুড়ি কবিরাজের বাড়িতে নিয়ে এসে কান্নকাটি ও অচেতন হবার কারণ জিজ্ঞাসা করলে এক পর্যায়ে ভন্ড কবিরাজের ধর্ষনের ঘটনা জানতে পারেন। এরই প্রেক্ষিতে গতকাল (২৭মে/২০১৭)ধর্ষিতা নিজে বাদি হয়ে নাচোল থানায় ওই কবিরাজের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করে। এব্যাপারে নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ ফাছির উদ্দিন রবিবার বিকেলে জানান, ধর্ষিতার জবানবন্দি নেয়ার পর ধর্ষন মামলা নেয়া হয়েছে। ধর্ষক কবিরাজকে আটক করা হয়েছে শনিবার বিকেলেই। ধর্ষক আদিবাসী কবিরাজকে ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য তদবির করতে আদিবাসী নেতারা থানায় এসেছিল। কিন্তু অপরাধীকে কোনভাবেই প্রশ্রয় দেয়া হয়নি। ধর্ষিত গৃহবধুকে ডাক্তারী পরীক্ষা করা হয়েছে এবং ধর্ষক কবিরাজকে রবিবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *