Sharing is caring!

নাচোল প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলের স্থগিত হওয়া ১নং কসবা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আগামী ২৮ মে শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। সে উপল¶ে নির্বাচনকে ঘিরে এলাকায় শেষমূহর্তে নির্বাচনী প্রচারণা জমে উঠেছে। এই নির্বাচনে বিএনপি ও বর্তমান ¶মতাসীন দল আওয়ামীলীগের মধ্যে হাড্ডা হাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভবনার কথা বলছেন স্থানীয় সাধারন ভোটাররা। ইউনিয়নটিতে দু’দলের মধ্যে আভ্যন্তরিণ দ্ব›দ্ব থাকলেও উভয় দলের কোন বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকায় বিএনপি ও আওয়ামীলীগের মধ্যে জয় পরাজয় হবে বলে সাধারন ভোটারদের দাবি। ইউনিয়নটিতে নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সমর্থীত (নৌকা) তরুণ প্রার্থী হিসেবে মাঠে নেমেছেন প্রভাষক আজিজুর রহমান। তিনি দলীয় প্রতিক নৌকা নিয়ে রাতের ঘুম হারাম করে দলীয় নেতা কর্মীদের নিয়ে মাঠে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপর দিকে বিএনপি সমর্থীত প্রার্থী মাহবুবুল আলম (খোকন) ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সাধারন ভোটারদের দ্বারে গিয়ে উন্নয়নের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। গত সোমবার সরোজমিনে গেলে স্থানীয় সাধারন ভোটাররা বিএনপি সমর্থীত প্রার্থী (ধানের শীষ) মাহবুবুল আলম (খোকন)’র সাথে আওয়ামীলীগ সমর্থীত প্রার্থী (নৌকা) প্রভাষক আজিজুর রহমানের হাড্ডা-হাড্ডি লড়াইয়ের কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে, জামায়াত সমর্থীত স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস প্রতীক) মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বিস্ফোরক আইনে মামলা থাকায় গত ৪মে তারিখে আদালতে আআত্মসমর্পণ করলে বিজ্ঞ আদালত তার জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করায় বর্তমানে তিনি জেলে রয়েছেন। বর্তমানে তার কর্মীরা প্রার্থীর জয়ের করানোর জন্য মরিয়া হয়ে মাঠে কাজ করছেন। তবে গত ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত নাচোল ইউপির ৩টি ইউনিয়ন, ২নং ফতেপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগ, ৩নং সদর ইউপিতে স্বতন্ত্র জামায়াত ও ৪নং নেজামপুর ইউপিতে জামায়াত প্রার্থীরা জয়লাভ করেন। সেই দিক থেকে ১নং কসবা ইউপিতে জামায়াতের প্রভাবে কিছুটা জয়ের সম্ভবনা একেবারে উড়িয়ে দেয়া যায়না, বলে সাধারন ভোটারদের মত।
ইউনিয়নটিতে সংরক্ষিত মহিলা আসনের ৩টি ওয়ার্ডে ১২ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৯টি ওয়ার্ডে ৩১ জন প্রার্থীর প্রতিক বরাদ্দের পর থেকেই দিনরাত তীব্র তাপদাহ উপেক্ষা করে জয়ের আশায় সাধারন ভোটারদের দ্বারে ছুটে বেড়াচ্ছেন। এখন শুধু অপেক্ষার পালা কার গলায় উঠবে বিজয়ের মালা। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সেজারউদ্দীন জানান, আগামী ২৮মে শনিবার কসবা ইউনিয়নের ১৩টি কেন্দ্রের ৬৪টি বুথে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এ ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ২২ হাজার ৪’শ ৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ১’শ ৫৮জন ও মহিলা ভোটার ১১ হাজার ২’শ ৫০ জন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *