Sharing is caring!

নাচোল সংবাদদাতা \ জেলার নাচোল পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলরদের দ্ব›দ্ব বর্তমানে চরম পর্যায়ে বলে জানা গেছে। এঘটনার জের ধরে রবিবার সকালে পৌর মিলনায়তনে সভায় সচিবের উপর হামলা ও লাঞ্চিতের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় পৌর সভার সচিব আহত হয়েছেন বলে মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন ঝালু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। জানা গেছে, রবিবার বেলা ১১টায় নাচোল পৌরসভা মিলনায়তনে মাসিক সাধারণ সভা শুরু হয়। সভায় পৌর এলাকার উন্নয়ন অগ্রগতিসহ ভবিষ্যত পরিকল্পনা গ্রহন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। আলোচনা সভার এক পর্যায়ে গত মিটিং-এ ৬ জন মাস্টার রোলে নিয়োগ দেওয়ার বিষয় নিয়ে মেয়র-কাউন্সিলরদের মাঝে হট্টোগোল দেখা দেয়। এসময় পৌর সচিব মোবারক হোসেন অনিবার্য কারণ বসতঃ সভা স্থগিত করেন। হট্টোগোলের এক পর্যায়ে মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন ঝালু কাউন্সিলরদের ঘর থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন বলে কতিপয় কাউন্সিলর অভিযোগ করেন। এসময় মেয়র ও কাউন্সিলরদের মধ্যে আবারো তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। প্রেক্ষিতে কাউন্সিলররা সচিবের উপর হামলা ও লাঞ্চিত করেন বলে প্রত্যক্ষ দর্শীরা জানায়। এব্যাপারে পৌর প্যানেল মেয়র ও ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফারুক আহম্মেদ বাবু অভিযোগ করে বলেন, গত রেজুলেশনে বে-আইনী ভাবে পৌর মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন ঝালু, সচিব ও প্রকৌশলীর যোগসাজসে গোপনে পৌরসভার মাষ্টার রোলে ৬ জনকে নিয়োগ করেছেন যা কাউন্সিলররা জানেন না। পৌরসভার সচিব মোবারক হোসেন জানান, আমার উপর কাউন্সিলররা হামলা এবং লাঞ্চিত করেছেন। সেই সাথে অফিসের গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র নষ্ট করেছেন। এ বিষয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কোন মামলা হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়র সাহেবের সম্মতি পেলে হামলা কারীদেরে বিরুদ্ধে মামলা করা হবে। এব্যাপারে মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন ঝালু বলেন, সচিবের উপর হামলার ঘটনাটি দুঃখজনক, তবে পুনরায় মিটিংএ বসে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *