Sharing is caring!

‘নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইন’ সমর্থনে

অশ্লীল কনটেন্ট মুছলেন সালমান

দিন দিন প্রশংসিত হচ্ছে নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনের কার্যক্রম। সেই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অশ্লীলতা না ছড়ানোর প্রতিজ্ঞা করে নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বিতর্কিত ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির।

এর আগে অশ্লীল ভিডিও তৈরি করে ইউটিউবে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার ক্রাইম ইউনিটে তাকে চার ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ৩টার দিকে ফেসবুক লাইভে এসে সালমান অশ্লীল কনটেন্ট তৈরি বন্ধ করা এবং না ছড়ানোর প্রতিজ্ঞা করেন।

জানা গেছে, ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের আটক ও জিজ্ঞাসাবাদের পর ফেসবুক লাইভে এসে নিজের ভিডিও গান সরিয়ে নেওয়া ও নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনে সম্পৃক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির। পাশাপাশি সালমান মুক্তাদির অশ্লীল ভিডিও কনটেন্ট তৈরি এবং প্রচার না করার অঙ্গিকার করেছেন।

এদিকে ফেসবুক লাইভে এসে সালমান বলেন, ‘আমার একটা গান প্রকাশ হয়েছিল ‘অভদ্র প্রেম’ শিরোনামে। যেই গানটি বাংলাদেশে পরিপ্রেক্ষিতে খুব বেশি তর্ক-বিতর্কের সৃষ্টি করে। গানটির জন্য সাইবার ক্রাইম ডিপার্টমেন্ট আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং আমাকে বলে এটা আমাদের দেশের কনটেক্সের বিপরীতে যায়। গানটি আমাকে নামিয়ে ফেলতে বলা হয়। আমি গানটি নামিয়ে দেওয়ার জন্য রাজি হয়েছি এবং নামিয়ে দিয়েছি’।

তিনি আরও বলেন, ‘ভিডিওটি কোনোভাবেই আমাদের দেশের জন্য এক্সেপটেবল না। আমি চেষ্টা করবো গানটির ভিডিও আমাদের দেশের উপযোগী করে নির্মাণ করার জন্য। এছাড়া আমাদের নিরাপদ ইন্টারনেটের যে ক্যাম্পেইন হচ্ছে সেটার সমর্থন করছি। আমি আশাবাদী এই ক্যাম্পেইনের একজন অ্যাম্বাসেডর হতে পারব। আমি সবাইকে আমন্ত্রণ জানাব এই ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করার জন্য এবং এটাকে সাধুবাদ জানানোর জন্য’।

উল্লেখ্য, গত ৯ ফেব্রুয়ারি ‘অভদ্র প্রেম’ শিরোনামে একটি মিউজিক ভিডিওটি ইউটিউবে ‘সালমান দ্য ব্রাউন ফিশ’ চ্যানেলে প্রকাশ করেন সালমান। মিউজিক ভিডিওটি তার প্রকাশের পর থেকেই তুমুল বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি। এতে তার চ্যানেলটি থেকে কমে যায় প্রায় ২ লাখের মতো সাবস্ক্রাইবার।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *